জুন 13, 2020

প্রথমে গত সপ্তাহের ঘটনাবলির পর্যালোচনা :

  • ইউরো/মার্কিন ডলার। যদি কেউ ভাবেন যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কোভিড-19 জয় করেছে, তাঁরা ভুল করছেন। করোনা ভাইরাস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে 21টি প্রদেশে, এর মধ্যে 14টিতে নতুন উচ্চতা রেকর্ড হয়েছে। সেই দেশে বর্ণবৈষম্য বিরোধী বিক্ষোভ সংক্রমণ পরিস্থিতিকে আরও বৃদ্ধি করবে। একে কি অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউ বলা যায়? এবং সেটা কমলে তৃতীয় ঢেউ কি আসবে না?
    যেসব বিনিয়োগকারী স্থির করেছিলেন করোনা ভাইরাসের কারণে মার্কিন অর্থনীতির সব সমস্যা পেছলে চলে গেছে, ভুল গণনা করেছিলেন। বাজারের প্রত্যাশা অনেকটা হ্রাস হয়েছে ফেড মিটিঙের পর কেননা এর প্রধান জেরোম পল বুধবার, 10 জুন, খুব সতর্কভাবে আশাবাদী বক্তব্য পেশ করেন। ফেড শুধু প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে এখনকার মতো গতিতেই পরিমাণগত সহজতা চালু থাকবে, যার অর্থ 2022 পর্যন্ত ডিসকাউন্ট হার শূন্যতে হ্রাস হওয়ার সম্ভাবনা।
    এর ফলে, ফেডের থেকে অতিরিক্ত স্টিমুলাসের অভাব এবং টেক্সাস, অ্যারিজোনা ও ক্যালিফোর্নিয়া ও অন্যান্য রাজ্যে অতিমারির নতুন ঢেউ ঝুঁকি-সেন্টিমেন্টে অনেকটা পতন ঘটিয়েছে এবং স্টকে এনেছে হিমবাহ সদৃশ পতন। বুধবার, 11 জুন, ডো জোন্স হারিয়েছে 6.9 শতাংশ, S&P500 পতন ঘটেছে 5.9 শতাংশ, নাসডাক হারিয়েছে 4.6 শতাংশ।
    আগুনে ঘৃতাহুতি যোগ হয়েছে ইউএস ট্রেজারি সচিব স্টিফেন এমনুচিনের বিবৃতি, যিনি বলেছেন, দেশ ফের কোয়ারান্টাইনের ব্যবস্থা করতে পারবে না। ভাষ্যকাররা সঙ্গে সঙ্গে মনে করেছেন যে 1920-র দশকে ‘স্প্যানিশ ফ্লু’-র দ্বিতীয় ঢেউ দশ মিলিয়ন জীবন নিয়েছিলেন কারণ অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও মানুষের জীবনের মধ্যে সরকার বেছে নিয়েছিল অর্থনীতি।
    বিনিয়োগকারীর ঝুঁকি-রুচি পতন সবাইকে প্রতিরক্ষামূলক সম্পদের দিকে নিয়ে গেছে, শুধু ডলার নয় বরং এইসঙ্গে ইউরো, ইয়েন ও সুইস ফ্রাঁ। G10-এর দুর্বল কারেন্সিগুলির ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়েছে, বিশেষ করে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ান ও কানাডিয়ান ডলারে।
    ঘটনা হল যে যা ক্ষতি হয়েছিল সেটা প্রায় এড়িয়ে গেছে ইউরো, কোয়ারান্টাইন সহজ হওয়া, নতুন সংক্রমিতের সংখ্যা সমান হওয়া এবং ইউরোজোনে আর্থিক কর্মকাণ্ড চালু হওয়ার জন্য।
    এর ফলে, 1.1290 শুরু করে ইউরো/মার্কিন ডলার জোড়া সপ্তাহটি শেষ করে 1.1260-এ, ডলারের পক্ষে সামান্য সুবিধা, 30 পয়েন্টে।
  • জিবিপি/মার্কিন ডলার। প্রতিরক্ষামূলক সম্পদ হিসেবে ডলারের শক্তিশালীকরণ প্রভাব ফেলেছে পাউন্ডে। জোড়াটির দ্রুত পতন ঘটেছে, 10 জুন সন্ধ্যা থেকে যা শুরু হয়েছিল। ব্রিটিশ ন্যাশনাল ব্যুরো অব স্ট্যাটিস্টিক্স এর দক্ষিণ অভিমুখে গতিবিধিতে অতিরিক্ত ইন্ধন জুগিয়েছে, যার ডেটা দেখায় দেশের অর্থনীতির দ্রুত পতন। কোভিড-19 অতিমারির কারণে, এপ্রিলে যুক্তরাজ্যের জিডিপি-র পতন ঘটেছে 20.1% এবং গত বছরের এপ্রিলের তুলনায় 24.5%। শিল্পজাত উৎপাদনের পতন ঘটেছে 20.3%, পরিষেবা ক্ষেত্রে উৎপাদনের (যা অর্থনীতির 80%) 19%। নির্মাণশিল্পে এপ্রিলে পতন ঘটেছে প্রায় 25%।
    ব্রেক্সিট এখনও গুরুতর ঝুঁকি, যার ওপর বোঝাপড়ার অনেক সুযোগ টিকে থাকবে এবছর শেষ না হওয়া পর্যন্ত। ব্রিটিশ সরকার নির্দিষ্টভাবে রূপান্তর পর্ব 2021-এ সম্প্রসারিত করতে চায় না, যা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অংশ হতে হুমকি দেয় কঠিন পরিস্থিতিতে বহু অসমাধিত সমস্যা নিয়ে।
    এসবই মার্কিন কারেন্সিকে তিনটি অসম্পূর্ণ দিনে প্রায় 300 পয়েন্ট শক্তিশালী করেছে এবং পাউন্ড পিছু এটি শেষ করেছে 1.2520 ডলারে।
  • মার্কিন ডলার/জেপিওয়াই। গত সপ্তাহে বিশেষজ্ঞদের গরিষ্ঠ অংশ (70%) মতামত প্রকাশ করেছেন এই জোড়ার 107.00-108.00 অঞ্চলে ফিরে আসার দিকে, এবং অনুমান হয়েছে 100% সঠিক।
    প্রায় গোটা সপ্তাহ ধরে নিরাপদ স্বর্গ কারেন্সি হিসেবে ইয়েন তার চাহিদা প্রমাণ করেছে। সোমবার থেকে শুক্রবারের মাঝামাঝি, এটি ডলারের আগে ছিল, প্রায় কোনো লড়াই ছাড়া জিতেছে 305 পয়েন্ট। যদিও, সপ্তাহের শেষটা জাপানি কারেন্সির জন্য ততটা সুখপ্রদত হয়নি : এশিয়ান সেশন বন্ধ হওয়ার পর ঝুঁকির খিদের বিকাশ পুনরুদ্ধারের ফলে জোড়াটি উঠেছিল এবং বিশেষজ্ঞদের প্রত্যাশা অনুযায়ী পাঁচ-দিনের পর্ব শেষ করেছে 107.35-এ।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ক্রিপ্টোকারেন্সি হল একটি কারেন্সি, যদিও ডিজিটাল। এবং টাকার সঙ্গে যা-কিছু জড়িত, সাধারণত অপরাধকে আকর্ষণ করে। সেরকমই, চীনে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি একটি বেআইনি মাইনিং ফার্ম খুঁজে পেয়েছে, যার সরঞ্জাম অবস্থিত ... সেমেট্রিতে। কিন্তু এটা আলোড়নের বিষয় নয়। আলোড়নকারী বিষয় হল যে বিটকয়েনের স্রষ্টা হতে পারেন প্রাক্তন ড্রাগ চালানকারী ইয়াসুতাকা নাকামোতো, যিনি অতীতে মেডেলিন কার্টেলের জন্য কাজ করেছেন। অন্তত, এটা দাবি করেছেন এস্কোবার ইনক.-এর প্রধান ওলাফ গুস্তাফসন, যিনি কার্টেল প্রধান পাবলো এস্কোবারের ভাই রবার্ট এস্কোবারের ডানহাত, যিনি 1993-তে খুন হন।
    ইয়াসুতাকা নাকামোতো ছিলেন প্যাসিফিক ওয়েস্ট এয়ারলাইন্সের প্রধান ইঞ্জিনিয়ার, এইসঙ্গে ছিল তাঁর অফিসিয়াল কাজ ছিল দক্ষিণ আমেরিকা থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ড্রাগ পরিবহণ। তাঁর প্রাক্তন ‘নিয়োগকর্তা’ দ্বারা ব্যর্থ হননচেষ্টার পর তিনি 1992-তে প্রকাশ্য ক্ষেত্র থেকে অদৃশ্য হয়ে যান, কিন্তু অভিযোগ যে এরপর বিটকয়েন ডেভেলপ শুরু করেন।
    কৌতূহলের বিষয়, ধারণা করা হচ্ছে যে ইয়াসুতাকা নাকামোতো হলেন ডোরিয়ান নাকামোতোর ভাই, যাঁকে নিউজউইক বলেছে 2014-তে প্রথম ক্রিপ্টোকারেন্সি সৃষ্টির পেছনে প্রধান মস্তিষ্ক।
    কিন্তু এসবই ধারণা। যদি আমরা সঠিক সংখ্যায় যাই, দেখা যাবে যে নাকামোতোর ব্রেনচাইল্ড সাম্প্রতিক মাসগুলিতে বেশ ভালো ফল করেছে, মার্চের নিম্নের তুলনায়, বিটিসি/মার্কিন ডলার জোড়া বৃদ্ধি হয়েছে প্রায় 140%। যদিও মূল কারেন্সি 10,000 ডলারের প্রধান স্তরের ওপরে পা রাখতে পারেনি, 10 জুন, বুধবার এর আরও একটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। মাত্র আলতো করে প্রত্যাশিত রেখা ছুঁয়েছিল, বিটিসি/মার্কিন ডলার জোড়া সঙ্গে সঙ্গে পড়ে যায় 9000 ডলারে, মাত্র কয়েক ঘণ্টায় হারায় 10 শতাংশ। তারপর একটা পুনরুদ্ধার ছিল, এবং এটি 9,000-10,000 ডলার চ্যানেলের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে ফিরে আসে।
    কিছু বিশ্লেষকের মতে, এই জায়গায় জমা বাঁধা বড় মাঝারি-মেয়াদের অবস্থান স্থির করতে। মূল ক্রিপ্টোকারেন্সি ধীরে ধীরে ঐতিহ্যবাহী প্রতিরক্ষামূলক সম্পদের সঙ্গে সম্পর্কিত হয়েছে, যা বোঝায় বড় বিনিয়োগকারীদের দ্বারা ক্রমাগত গ্রহণ।
    এটা বিভিন্ন গবেষণা সংস্থার রিপোর্টে নিশ্চিত করা যেতে পারে। ফিডেলিটি ইনভেস্টমেন্টের সমীক্ষা অনুযায়ী, 774 সংস্থামূলক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে 36 শতাংশ সমীক্ষা করা হয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে বিটকয়েন এবং অন্যান্য ক্রিপোক্ট অ্যাসেট। আমরা কথা বলছি পেনশন ফান্ড, ফ্যামিলি ট্রাস্ট কোম্পানি, কনসালটিং এবং ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি সম্পর্কে, এর পাশাপাশি ডিজিটাল ও প্রথাগত হেড ফান্ড সম্পর্কে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আর্থিক সংস্থার সংখ্যা যা ইনভেস্টমেন্ট পোর্টফোলিওতে ক্রিপোক্টকারেন্সি যোগ করেছে বছর জুড়ে 22% থেকে 27%, রেসপন্ডেন্টদের 45% বিনিয়োগ করেছেন ক্রিপ্টো অ্যাসেটে।
    এটা উল্লেখযোগ্য যে ইউরোপিয়ান কোম্পানিগুলো ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রতি আরও অনুগত হয়েছে, যার কারণ হতে পারে নেতিবাচক সুদের হার এবং করনো ভাইরাস সংকট, যা ঐতিহ্যবাহী অ্যাসেটে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে।
    সমীক্ষায় এক-চতুর্থাংশের বেশি কোম্পানি বিটকয়েন পছন্দ করে, এবং 11 শতাংশ বিনিয়োগ করেছে ইথেরিয়ামে, যার বিকাশ এমনকি বিটিসি-কেও পেছনে ফেলেছে (মার্চের নিম্ন থেকে +175%)। যাইহোক, গত সপ্তাহে বেশ কয়েকটি রহস্যময় কাহিনি এই অগ্রগণ্য বিটকয়েনের সঙ্গে সম্পর্কিত ছিল।
    সেজন্য, মাইনিংপুল হাব পুলের সঙ্গে জড়িত ঠিকানা প্রদান করেছে 2310 ETH ($538 হাজার) কমিশন 3221 ETH ($751 হাজার) ট্রান্সফারের জন্য। এটা হল খুব উচ্চ কমিশনে ইথেরিয়াম নেটওয়ার্কে তৃতীয় বৃহত্তম লেনদেন। এর আগে, একজন অজানা ইউজার 10.668 ETH ($2.6 মিলিয়ন) লেনদেনের জন্য কমিশন হিসেবে প্রদান করেছিল 350 ETH ($86 হাজার)। এবং একদিন আগে, সেই একই অংশগ্রহণকারী শার্কপুল মাইনিং পুলে ওই একই 10,668 ETH ($2.6 million) প্রদান করে 0.55 ETH ($133) ট্রান্সফার ফি হিসেবে!
    ইথেরিয়াম স্রষ্টা ভিটালিক বুটেরিন সহ বেশ কিছুসংখ্যক বিশেষজ্ঞের মতে, এই লেনদেনগুলি হল মানি লন্ডারিং বটে একটি ত্রুটি।

 

আগামী সপ্তাহের অনুমানের ক্ষেত্রে, বেশকিছু সংখ্যক বিশেষজ্ঞের মতামতের সংক্ষেপের পাশাপাশি টেকনিক্যাল ও গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে আমরা বলতে পারি :

  • ইউরো/মার্কিন ডলার। এটা এখনও পরিষ্কার নয় যে ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের চাহিদা আগামী দিনে ফিরে আসবে কি না। উদাহরণস্বরূপ, s&P500 ভবিষ্যৎ যা শুক্রবার, 12 জুন, পড়েছে, পেয়েছিল একটি গুরুতর সাপোর্ট 200-দিনের গড়ের স্তরে। কোভিড-19-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সাফল্যের ওপর অনেক কিছু নির্ভর করছে, শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়, বরং গোটা পৃথিবীতে, এবং ফেড ও ইসিবি-র ক্রিয়াকলাপে। ওয়াশিংটন ও বেইজিঙের উত্তপ্ত সম্পর্কের কথা আমাদের ভুলে যাওয়া উচিত নয়। এইসঙ্গে তেলের বাজারের মূল্য-যুদ্ধ। বিনিয়োগকারী সেন্টিমেন্টেও প্রভাব পড়েছে জেরোম পাওয়েলের কথায় যা তিনি বলবেন আগামী সপ্তাহে মার্কিন কংগ্রেসে। এবং ইউরোর ক্ষেত্রে, ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের পরবর্তী বৈঠকে পুনরুদ্ধার পন্থায় সম্ভাব্য অসম্মতি দ্বারা নির্দিষ্ট ঝুঁকি নেওয়া হবে।
    এদিকে, 60 শতাংশ বিশ্লেষকের মতামত হল যে ইউরো/মার্কিন ডলার জোড়া 1.1200 অঞ্চলের নীচে পড়তে সক্ষম হবে না। সেক্ষেত্রে, রেজিস্ট্যান্স স্তর হবে 1.1425 এবং 1.1500। বাকি 40 শতাংশ H4 গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণ দ্বারা সমর্থন করা হয়েছে যা বলে, এক-দুই সপ্তাহের ভেতরে জোড়াটি 1.0955 -1.1000 অঞ্চলে ফিরে আসবে। নিকটতম শক্তিশালী সাপোর্ট হল 1.1100। এখানে মনে রাখতে হবে যে যখন জুলাইয়ের জন্য অনুমান হচ্ছে, ডলার শক্তিশালীকরণের সমর্থকের সংখ্যা বৃদ্ধি পায় 65 শতাংশে।
    টেকনিক্যাল বিশ্লেষণের জন্য, অসিলেটরদের অধিকাংশ এবং D1-এ ট্রেন্ড ইন্ডিকেটররা এখনও 15 মে থেকে 5 জুন পর্যন্ত ঊর্ধ্বগতির প্রভাবের পক্ষে এবং রং নীল। H4-এ চিত্র ঠিক বিপরীত, এখানে লাল প্রাধান্য করে, যদিও অসিলেটরদের 15 শতাংশ ইতিমধ্যে সংকেত দিয়েছেন যে জোড়াটি অতিরিক্ত বিক্রীত।

  • জিবিপি/মার্কিন ডলার। কিছু বিশেষজ্ঞের মতে, গ্রেট ব্রিটেনের জন্য আর্থিক ক্রিয়াকলাপের নিম্নতম বিন্দু হয়েছে এপ্রিল। যদিও এই দেশের অর্থনীতি এর প্রাক্-সংকট পরিমাণে ফিরবে না 2022 অথবা এমনকি 2023 শেষ হবার আগে। ইতিমধ্যে এবছরের তৃতীয় ত্রৈমাসিক অপেক্ষা করছে উল্লেখযোগ্য ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে। একটি ইতিবাচক ভূমিকা অবশ্যই পালন করা হবে এই তথ্যের ওপর যে সরকার বেকারির হার ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে 4.4 শতাংশে রাখতে পেরেছে।
    একজন বিনিয়োগকারীদের দিক থেকে, ব্রিটিশ অর্থনীতি তাৎক্ষণিক বিচারের জন্য পরের সপ্তাহ হতে পারে খুব গুরুত্বপূর্ণ। মঙ্গলবার, 16 জুন, ইউকে লেবার মার্কেটের ডেটা প্রকাশ পাবে, বুধবার – উপভোক্তা বাজারের ডেটা এবং বৃহস্পতিবার, 18 জুন, আমরা অপেক্ষা করছি ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের বৈঠকের ফলাফলের জন্য। খুব সম্ভাবনা আছে যে রেগুলেটর সুদের হার রাখবেন ন্যূনতম 0.1 শতাংশে এবং খোলা বাজারের বন্ড ক্রয় কর্মসূচি বৃদ্ধি করবেন কোয়ান্টিটেটিভ ইজিং (কিউইউ) হিসেবে বর্তমানের £ 645bn থেকে £725bn -এ। মনে রাখতে হবে যে তিন মাসে এর পরিমাণ ছিল মাত্র £435bn এবং এরকম সম্প্রসারণ যুক্তরাজ্যের অর্থনীতির জন্য ইতিবাচক উপাদান।
    এসব সিদ্ধান্তের অনুমান, বিশেষজ্ঞদের মতামত নিম্নোক্তভাবে বিভাজিত : 45 শতাংশ এবং H4-এ গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণ জোড়াটির বিকাশের পক্ষে, D1-এ গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণের 35 শতাংশ ধারাবাহিক পতনের দিকে, এবং বাকি 20 শতাংশ বিশ্লেষক আনুভূমিক প্রবণতার পক্ষে, যা 1.2400-1.2645। বুলের জন্য লক্ষ্য হল 1.2815 এবং 1.2900, বিয়ার্সের জন্য 1.2355, 1.2265 এবং 1.2165।
    ইন্ডিকেটরদের মধ্যে, পরিস্থিতি এরকম : তাদের 75 শতাংশের কালার H4-এ লাল, আর D1-এ সমানসংখ্যক ইন্ডিকেটরদের কালার লাল, সবুজ এবং নিরপেক্ষ ধূসর।
  • মার্কিন ডলার/জেপিওয়াই। বিশ্লেষকদের মতামত বণ্টিত হয়েছে প্রায় একইরকম জিবিপি/মার্কিন ডলার জোড়ার জন্য : 40 শতাংশ জোড়াটির বিকাশের এবং এটি 108.25-109.70 অঞ্চলে ফিরে আসার পক্ষে, 35 শতাংশ এর পতনের পক্ষে এবং বাকি 25 শতাংশের মতে সাইডওয়ে প্রবণতা থাকবে। কিন্তু টেকনিক্যাল বিশ্লেষকদের মতামত ঠিক বিপরীত : H4-এ ডিসকর্ড এবং D1-এ একটি কালারের প্রাধান্য, যেখানে 75 শতাংশ অসিলেটর এবং 90 শতাংশ ট্রেন্ড ইন্ডিকেটরের রং লাল।
    গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণের প্রেক্ষিতে, এটি জোড়াটির বিকাশের পক্ষে প্রথমে বলেছে, H4-এ 108.00 উচ্চতা এবং এরপর প্রথমে পড়বে 106.55-107.00 অঞ্চলে এবং ফের হ্রাস হবে মে-র নিম্নে 106.00 অঞ্চলে।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ব্লকফায়ার ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সিমন ডেডিকের বিশ্বাস যে বিটকয়েনের মিছিল শুরু হবে এবং মূল ক্রিপ্টোকারেন্সিকে আনবে 150,000 ডলারে। উপরন্তু শুধু বিটকয়েনের বিকাশ হবে না, বরং এইসঙ্গে অগ্রগণ্য বিটকয়েনগুলিরও। ‘2017 সালে, আপনি আক্ষরিকভাবে যে কোনো অল্টকয়েন কিনতে পারতেন, এবং এটা ছিল ভালো বিনিয়োগ পরিকল্পনা। কিন্তু এটা মনে হচ্ছে আর ঘটবে না। যদিও আমার বিশ্বাস যে মিছিল ফের ফিরবে, কিছু জমাট অল্টকয়েনকে ‘পাম্প’ করবে : ETH - $9,000; LINK - $200; BNB - $500; VET – $1; XTZ - $200’, বলেছেন ডেডিক।
    - কেন আইল্যান্ড অল্টারনেটিভ অ্যাডভাইজর্স থেকে বিশ্লেষক টিমোথি পিটারসন অনুমান করেছেন ঠিক বিটিসি-র অর্ধেক মূল্য। মার্চের নিম্ন 3600 ডলার থেকে রিকভার ট্র্যাক করে তিনি বলেছেন যে বিটকয়েন তালিকা ‘নিখুঁতভাবে অনুসরণ করে’ সেই গতিবিধিকে যা একে নিয়ে যাবে 2013-র উচ্চতায়, যখন বিটিসি উঠেছিল 1300 ডলারে। সেজন্য, বিশ্লেষকের অনুমান যে আমরা নিকট ভবিষ্যতে মূল ক্রিপ্টোকারেন্সির 70 শতাংশ বৃদ্ধি আশা করতে পারি, 75000 ডলার পর্যন্ত।
    এই মুহূর্তে, বিটিসি/মার্কিন ডলার জোড়ার অনেক কাজ বাকি আছে : 10,000-11,000 ডলার অঞ্চলে পা রাখতে হবে, ৫৫ শতাংশ বিশেষজ্ঞের বিশ্বাস যে এই জোড়াটি এটি পূরণ করতে পারবে জুন শেষ হওয়ার আগেই, 15 শতাংশ সাইড ট্রেন্ডের পক্ষে যা হল 9,000-10,000 ডলারের মধ্যে, এবং বাকি 30 শতাংশ, বিপরীত দিকে, তাদের আশা বিটিসি-র পতন হবে 8,000-8,500 ডলারে।
    ক্রিপ্টো ফিয়ার অ্যান্ড গ্রিড ইনডেক্স 12 জুনে নেমেছে 38-এ (এক সপ্তাহ আগে 53 থেকে) এবং ফিয়ার জোনে রয়েছে। এই মূল্যে, ইনডেক্সের ক্রিয়েটরদের মতে, ট্রেডারদের সতর্কভাবে বিবেচনা করতে হবে দীর্ঘ পজিশনের খোলার সম্ভাব্যতায়।

 

নর্ডএফএক্স অ্যানালিটিক্যাল গ্রুপ

 

বিজ্ঞপ্তি : এসব তথ্য আর্থিক বাজারে কাজের জন্য বিনিয়োগ বা পরামর্শ হিসেবে কোনো সুপারিশ নয় : এগুলি একমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং খুবই ঝুঁকিপূর্ণ এবং এর ফলে ডিপোজিটকৃত ফান্ডের পরিপূর্ণ ক্ষতি হতে পারে।


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)