এপ্রিল 18, 2020

প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাগুলোর একটা পর্যালোচনা:

  • EUR/USD গত চার সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বেকারত্বের সুবিধা পাবার জন্য আবেদনের সংখ্যাটা 2.2 কোটিতে পৌঁছেছে। তুলনা করে দেখলে, পরিসংখ্যানটা গত কয়েক বছর ধরে মোটামুটি 9 লক্ষ 30 হাজারের স্তরেই আটকে ছিল। অন্যভাবে বললে, বেকারিত্ব 23 গুণ বেড়েছে! মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মসংস্থানসম্পন্ন লোকের সংখ্যাটা 15 কোটির কিছু বেশি, তাই COVID-19 সংকটের জন্য তৈরি হওয়া কর্মসংস্থান হারানোর পরিমাণটা সব ধরনের কর্মসংস্থানগুলি নিয়ে 15% দিকে এগিয়ে চলেছে।
    প্রধান প্রধান ব্যাংকগুলো, যেমন মর্গ্যান স্ট্যানলি এবং জেপি মর্গ্যান, তাদের পূর্বাভাসগুলিতে সংশোধন করেছে এবং তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির পতন বিপর্যয়কারী অঙ্ক 40%-এ পৌঁছাতে পারে। আর সেন্ট লুইস ফেডেরাল রিজার্ভ ব্যাংকের প্রধান, জেমস বোলার্ড বলেছেন, শীঘ্রই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি তৃতীয় আমেরিকাবাসী কর্মহীন হয়ে পড়বে।
    তবে ইউরোপের অবস্থাও খুব একটা ভাল নয়, এবং সেটাই EUR/USD জুটিকে প্রবল ওঠানামা থেকে দূরে রেখেছে। মার্কিন প্রশাসন ও মার্কিন ফেডেরাল রিজার্ভের মার্কিন অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য দেওয়া সহায়তাগুলোও ডলারকে সাহায্য করে। ফলত, গত সপ্তাহে সর্বোচ্চ অস্থিরতার হার ছিল 180 পয়েন্টের কম, যেটাকে বর্তমান সময়ে ফ্ল্যাট-ই বলা চলে। দরগুলিতে চূড়ান্ত বদলের ক্ষেত্রে, অঙ্কটা আরও নিচে: পাঁচ দিনে এই জুটি মাত্র 70 পয়েন্ট পড়েছে, কারবারি সময়কাল 1.0870-এ শেষ করে;
  • GBP/USD ব্রিটিশ মুদ্রাও “শ্মশানের শান্তি” প্রদর্শন করছে, এমনকি IMF ও তাদের দেশীয় পূর্বাভাসগুলি উভয়েই এই ভবিষ্যদ্বাণী করা সত্ত্বেও যে, ব্রিটেনের অর্থনীতি এই অতিমারির কারণ বিশ্বের সেই সব অর্থনীতির অন্যতম হতে চলেছে যেগুলি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে, এবং দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে GDP হ্রাসের হার 35 শতাংশে এসে পৌঁছাতে পারে। পরপর তিন সপ্তাহ ধরে, GBP/USD জুটি বার বার 1.2500-এ ফিরে গেছে। কিছু বিশেষজ্ঞের মতে, এখন, যখন বিনিয়োগকারীদের মনোযোগ S&P500 এবং ডলারে কেন্দ্রীভূত হয়ে রয়েছে, তখন মার্চের দ্বিতীয় অর্ধে বিরাট পতনের পর ও পরবর্তী কিছু সংশোধনের পর, পাউন্ড কিছুটা বিশ্রাম পেয়েছে।
    H4-এর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ যেমনটা ভবিষ্যদ্বাণী করেছিল, সপ্তাহের শুরুতে পাউন্ড উপরে ওঠে, 1.2650-র উচ্চতায় পৌঁছায়, তারপর ঘুরে যায় এবং 1.2400-র হরাইজনে ডুব দেয়। অন্তিম সুরটা শোনা গেছিল তিন সপ্তাহের পিভোট পয়েন্ট 1.2500-র আশেপাশে;
  • USD/JPY বিশেষজ্ঞদের 60% গত সপ্তাহে ডলারের আরও দুর্বল হয়ে ওঠার এবং এই জুটির 107.00-র অঙ্কে পতনের পক্ষে মত দিয়েছিলেন। এই পূর্বাভাস 100% সঠিক প্রতিপন্ন হয়: এই জুটি গত বুধবার, 15ই এপ্রিল তারিখে এর লক্ষ্যে পৌঁছায়, যার পর এরা ঘুরে যায় এবং পার্শ্ববর্তী সংকীর্ণ চ্যানেল 107.15-108.05-এর মধ্যে দিয়ে যেতে থাকে, যার কেন্দ্রে থাকাকালীন এরা তাদের পাঁচ দিনের সময়কাল শেষ করে, স্তরটা ছিল 107.60;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। গত সপ্তাহে সেই ঠিকানার সংখ্যা দু’-বছরের সর্বোচ্চ অঙ্কে পৌঁছেছে বলে জানা গেছিল যেখানে 1000 BTC-রও বেশি মজুত করে রাখা আছে। GlassNode সংস্থার বিশেষজ্ঞেরা বলেছেন, ক্রিপ্টোকারেন্সি ধারকেরা গত দুই সপ্তাহ ধরে সক্রিয়ভাবে বিভিন্ন পজিশন সংগ্রহ করে চলেছেন প্রধান কয়েনের দর অর্ধেক হয়ে যাবার অনুমান থেকে। তাদের মতে, বহু বিনিয়োগকারী বিটকয়েনে ঝাঁপানো জারি রেখেছে অন্তত দুবার করে। কিন্তু, GlassNode-এর বিশ্লেষকেরা সতর্ক করেছেন যে, এই ধরনের পূর্বাভাসের উপর বিশ্বাস করাটা ঠিক হবে না যেহেতু COVID-19-এর কারণ উদ্ভুত পরিস্থিতি প্রতিদিনই বদলে চলেছে।
    তাছাড়া অতিমারিকে সামনে রেখে ক্রিপ্টোকারেন্সির দুষ্টচক্রও অনেক বেশি সক্রিয় হয়ে পড়েছে। FBI এমনকি ওই ধরনের সবচেয়ে প্রচলিত জালিয়াতিগুলির একটি তালিকাও একত্রিত করেছে, যার মধ্যে ব্যক্তিগত ডেটা চুরি করে নেবার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করা এবং করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতির মোকাবিলার জন্য অনুদান সংগ্রহ করার মতো ঘটনাগুলোও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
    মজার বিষয় হল, ক্রিপ্টোকারেন্সির দুষ্টচক্রের ঠিকানাগুলিতে লেনদেনের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া সত্ত্বেও, তাদের আয় কিন্তু কমে গেছে। Chainalysis-এর মতে, এপ্রিল মাসের গোড়ায়, দুষ্টচক্রগুলিতে যে পরিমাণ অর্থ আসত তার অঙ্কটা ছিল $400 হাজারের কিছু বেশি, যেখানে জানুয়ারীতে সেটা ছিল তার দ্বিগুণ।
    আমরা আমাদের আগের পূর্বাভাসে উল্লেখ করেছিলাম যে, আমরা এটা উল্লেখ করেছিলাম যে, মার্চের 20 তারিখ থেকে শুরু করে, প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সি $7,000 স্তরের উপরে তার পা রাখার বিফল চেষ্টা করে চলেছে। গত সপ্তাহও তার ব্যতিক্রম ছিল না। ঊর্ধ্বগতি (বুল) ও নিম্নগতির (বিয়ার) মধ্যেকার যুদ্ধ সাফল্যের তারতম্য-সহ জারি রয়েছে, প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সিকে $6,550-7,180-এর চ্যানেলে রেখে দিয়ে। ক্রিপ্টোবাজারের মোট মূলধনের ক্ষেত্রে, গত এক সপ্তাহে সেটা খুব একটা বদলায়নি এবং সেটা মোটামুটি $200 বিলিয়নের অঞ্চলেই ঘোরাফেরা করেছে। ক্রিপ্টো ফিয়ার অ্যান্ড গ্রিড সূচকও বদলায়নি। সম্ভাব্য 100-র মধ্যে 15-এ এসে থেমে গিয়ে, এটা ইঙ্গিত করে যাচ্ছে যে, বাজারে এখন প্রবল ভয়ের বাতাবরণ রয়েছে।
    রিপল (XRP/USD), লিটকয়েন (LTC/USD) এবং ইথিরিয়ামের (ETH/USD) মতো শীর্ষস্থানীয় অল্টকয়েনগুলো, স্বাভাবতই, প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সির উত্থানকে অনুসরণ করেছিল। ইথিরিয়াম সামান্য আলাদা ছিল, সাত দিনের কারবারি সময়কালে সেটি 6.5% বৃদ্ধি দেখিয়েছিল।

 

আগামি সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, একাধিক বিশ্লেষকদের মতামতগুলোকে, ও সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও গ্রাফিক্সভিত্তিক বিশ্লেষণের বহুবিধ পদ্ধতির ভিত্তিতে করা পূর্বাভাসগুলোকে একত্রিত করে, আমরা নিম্নোক্ত কথাগুলো বলতে পারি:

  • EUR/USD যদিও মধ্য-মেয়াদি বাজারের প্রত্যাশাগুলিকে অন্ধকারময় দেখাচ্ছে, কিন্তু স্বল্প-মেদায়ে মার্কিন অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করার পরিকল্পনা রয়েছে, যা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছিলেন, তার ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের হার কমার বিষয়টিও সাহায্য করেছে। কিছু কিছু বিনিয়োগকারী, ম্যাক্রোইকোনমিক ডেটা ও পূর্বাভাসগুলিকে সরিয়ে রেখে, আশাজনক দৃষ্টিতে ভবিষ্যতের দিকে দেখছে, তারা চীনকে উদাহরণ হিসেবে মানছেন, যেখানে বড় কোম্পানিগুলোর 100% ও ছোটগুলোর প্রায় 80% ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে।
    এই মুহূর্তে, বিশেষজ্ঞদের 60%, যাদের H4 ও D1-এর সূচকগুলোর 65% সমর্থন করেছে, ডলারের মজবুত হওয়ার ও এই জুটির 1.0750-এর স্তরে পড়ে যাবার প্রত্যাশা করছে। পরবর্তী লক্ষ্যমাত্রা হল 1.0635-র নিম্নস্তর। বাকি 40% বিশ্লেষকদের মধ্যে এখনও ডলারকে নিয়ে সন্দেহ রয়ে গেছে, তারা প্রত্যাশা করছে এই জুটি অন্তত 1.1000-এর উচ্চতায় উঠবে, এবং তারপর, হয়তো, আরও 100 পয়েন্ট উঠবে।
    জার্মানি ও ইউরোজোনের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড ও সেই সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেকারিত্বের সুবিধার জন্য আসা আবেদনপত্র হল আগামি সপ্তাহের কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। এই সমস্ত ডেটাগুলি আগামি বৃহস্পতিবার, 23শে এপ্রিল তারিখে প্রকাশিত হতে চলেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টেকসই পণ্যসামগ্রীর অর্ডারের গতি, যেটা আমরা আগামি শুক্রবার, 24শে এপ্রিল দেখব, তা-ও স্থানীয় প্রবণতাকে প্রভাবিত করতে পারে;
  • GBP/USD। আগামি বৃহস্পতিবার, 23শে এপ্রিল, শুধু জার্মানি ও ইউরোজোনের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের ডেটাগুলিই প্রকাশিত হবে না, UK-রও হবে। সেই সঙ্গে, বেকারিত্বের ডেটা প্রকাশিত হবে আগামি মঙ্গলবার, 21শে এপ্রিল, এবং UK-এর ভোগ্যপণ্যের মূল্যের সূচকও প্রকাশিত হবে আগামি বুধবার, 22শে এপ্রিল।
    উপরে যেমন বলা হল, পূর্বাভাসগুলি মোতাবেক, এই দেশটা করোনা দ্বারা সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত দেশগুলির একটি হতে পারে, এবং এখানকার বেকারিত্বের অঙ্কটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তুলনাযোগ্য অঙ্কে পৌঁছাতে পারে। Brexit-এর সঙ্গে যুক্ত রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ঝুঁকিগুলিও লুকানো হয়নি, একাধিক অমীমাংসিত সমস্যা থেকেই গেছে। তবে, বিনিয়োগকারা আশা করছেন যে, EU-এর সাথে চূড়ান্ত বিচ্ছেদ আরও দীর্ঘ সময়ের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হবে বা, অন্তত এই বর্তমান পরিস্থিতিতে, আইল্যান্ডাররা ইউরোপের সঙ্গে একটু ভাল শর্তে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারবে।
    এই অনিশ্চিয়তার পরিস্থিতিতে, বিশ্লেষকদের পরবর্তী সপ্তাহ ও মাসের জন্য দেওয়া পূর্বাভাসগুলিকেও সমানভাবে অনিশ্চিত দেখাচ্ছে: তাদের 15% এই জুটির বৃদ্ধির পক্ষে মত দিয়েছে, 25% দিয়েছে পতনের পক্ষে, এবং বাকি 60% খালি কাঁধ ঝাঁকিয়েছেন। H4-এর সূচকও নিরপেক্ষ দেখাচ্ছে, যেখানে D1-এর অসিলেটরগুলোর 75% এবং প্রবণতার সূচকগুলোর 60%-র রঙ সবুজ রয়েছে।
    গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণগুলোর ক্ষেত্রে, ছবিটা এখানে কিছুটা আলাদা: H4 ও D1-এ, প্রথমে এই জুটির জন্য যথাক্রমে 1.2335 ও 1.2200-র অবলম্বনগুলিতে পতন, আর তারপর যথাক্রমে 1.2500 ও 1.2650-র স্তরে ফিরে যাওয়া আঁকা আছে;
  • USD/JPY। ইয়েনের জন্য 107.00-র অঞ্চল কয়েক মাস এবং এমনকি কয়েক বছর ধরে একটি উল্লেখযোগ্য অবলম্বন/প্রতিরোধের স্তর হয়ে রয়েছে। এরই কাছাকাছি এই জুটি গত কয়েকদিন ধরে ঘোরাফেরা করছে। বিশ্লেষকদের বিরাট একটা অংশ (70%) এই ভবিষ্যদ্বাণী করেছে যে, এই জুটি আবার এই স্তরটাকে উপর থেকে নিচ অবধি ভাঙ্গতে চেষ্টা করবে এবং, যদি সফল হয়, 105.80-র হরাইজনে পড়ে যাবে। তার পরের লক্ষ্যগুলি হল 105.00 এবং 104.40।
    এই ধরনের অগ্রগতির বিপক্ষের লোকেরা (তারা হল 30%) মনে করছে যে, ফেব্রুয়ারী-মার্চ জুড়ে চলা নাটকীয় সব ঘটনার পর, ইয়েন আবার 107.60-110.00-র অলিন্দে ফিরে এসেছে, যেখানে এটা আগামি কয়েক সপ্তাহ ধরে থাকবে। নিকটতম প্রতিরোধ হল 108.40।
    দুটি সময়কাঠামোর সূচকই স্বল্প সময়ের পজিশন খোলার জন্য ইঙ্গিত দিচ্ছে, কিনতু অসিলেটরগুলোর 15% ইতিমধ্যেই এই সংকেত দিচ্ছে যে, এই জুটি মাত্রাতিরিক্ত বিক্রি হয়েছে;

  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। - Galaxy Digital-এর প্রধান মাইক নোভোগ্রাৎজ ব্লুমবার্গ টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, বিটকয়েনের সময় এসে গেছে। দর অর্ধেক হয়ে যাবার জন্য এক মাসেরও কম সময় রয়েছে, যে জন্য বিনিয়োগকারীদের এই প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সির দামে গুরুতর পরিবর্তনের জন্য তৈরি থাকা উচিত, এবং মাইনারদের জন্য পুরস্কার ঘোষণার মতো আশাবাদী পরিস্থিতি যদি বাস্তবায়িত করা হয়, তাহলে এখনই হবে বিটকয়েন কেনার সঠিক সময়। "এই প্রবণতা যদি চলতে থাকে, তাহলে বিটকয়েনের মূলধনায়ন তার দর অর্ধেক হয়ে যাবার আগেই কয়েকগুণ বেড়ে যাবে," এই বিলিয়নেয়ারের বিশ্বাস।
    ডিজিটাল সম্পদগুলোর ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে মাইক নোভোগ্রাৎজ চীনকে একটি উদাহরণ হিসেবে দেখিয়েছেন। কিন্তু বিটকয়েনের কী হবে, যখন কাগজের ইউয়ানের সাথে সাথে, ডিজিটাল ইউয়ানও এসে যাবে? এর বেশ সম্ভাবনা রয়েছে যে, বিনিয়োগকারীদের, মূলত চীনাদের, একটা উল্লেখযোগ্য অঙ্কের বিনিয়োগের অংশ সেটা টেনে নেবে। তাই, প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সির প্রত্যাশার নীরিখে, সব কিছুই ততটা নিষ্কন্টক হবে না।
    সেই সঙ্গে, মার্কিন কর্তৃপক্ষও, যাদের লক্ষ্য হচ্ছে সিকিউরিটি বাজারকে পুনরুদ্ধার করা, বিটকয়েনের বৃদ্ধিতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যেন-তেন-প্রকারেন তাদের অর্থনীতিকে পুনর্গঠনের চেষ্টা করছে, কিন্তু প্রক্রিয়াটা অতিমারি ও একাধিক অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পরিস্থিতির কারণে বিলম্বিত হয়ে যেতে পারে, ডলারের অবমূল্যায়ন সমেত। আইনি মুদ্রার বাজারের সমর্থনের কারণে, বিটকয়েন বিনিয়োগকারীদের সমর্থন পায়নি,” এক অর্থ বিনিয়োকগারী ড্যান টোপিয়েরের কথা। তার মতে, মার্চ মাসে বিটকয়েনের 20% শতাংশ পড়ে যাওয়া যেখানে একটি 50% কমানোর একটাই একক ঘটনা ছিল, ডিজিটাল সম্পদ ও সিকিউরিটির মধ্যেকার পারস্পরিক সম্পর্ককে দর্শায়। সোনা ও ডলারের সঙ্গে প্রধান কয়েনের যোগাযোগ ক্রমেই হ্রাস পেয়ে চলেছে।
    সাপ্তাহিক পূর্বাভাসে ও BTC/USD জুটির $7,000-র প্রতিরোধকে অতিক্রম করার সম্ভাবনার দিকে ফিরে, আমরা লক্ষ্য করি যে, বিশেষজ্ঞদের 60% এই জুটির $7,200-7,800-র অঞ্চলে বৃদ্ধি পাবার পক্ষে রায় দিয়েছে। মজার কথা হল, মাইক নোভোগ্রাৎজের বিপরীতে, বিশ্লেষকদের কেউ-ই আশা করেননি যে, প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সি তার দর অর্ধেক হয়ে যাবার পরিণামস্বরূপ কয়েক গুণ বৃদ্ধি পেতে সমর্থ হবে।  সবচেয়ে আশাবাদী পূর্বাভাসও বহু কষ্টে $9,000 অবধি উঠতে পেরেছে, আর বিশেষজ্ঞদের 35% এখন আশা করেন এর দর $5,700-6,000-র স্তর অবধি পড়ে যাবে।

 

NordFX বিশ্লেষণ গোষ্ঠী

 

দ্রষ্টব্য: এই বক্তব্যগুলিকে আর্থিক বাজারে কাজ করার জন্য বিনিয়োগের পরামর্শ বা পথনির্দেশ হিসেবে দেখা উচিৎ নয় এবং এগুলির উদ্দেশ্য হল শুধুমাত্র তথ্য পরিবেশন করা। আর্থিক বাজারগুলিতে কেনা-বেচা করা ঝুঁকিপূর্ণ কাজ এবং তা লগ্নীকৃত অর্থ পুরোপুরি হারানোর কারণ হতে পারে।


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)