নভেম্বর 2, 2019

প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাগুলোর একটা পর্যালোচনা:

  • EUR/USD। যা প্রত্যাশা করা হয়েছিল তা-ই হয়েছিল: 30শে অক্টোবর, বুধবার, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডেরাল রিজার্ভ ডলারের উপর সুদের হার 2.0% থেকে 1.75%-এ নামিয়ে আনে। স্বাভাবিকভাবেই, মার্কিন মুদ্রা পড়তে শুরু করে, এই জুটি ওঠে, কিন্তু গতি খুবই শান্ত ছিল: বাজার ফেডেলার রিজার্ভের এই সিদ্ধান্তে জন্য বহু দিন ধরেই অপেক্ষা করেছিল। ফলত, এই জুটি গত মার্চ মাসে শুরু হওয়া মধ্য-মেয়াদি অবলম্বন (সাপোর্ট)/প্রতিরোধ (রেজিস্ট্যান্স) রেখায় ফিরে গিয়ে কোনক্রমে 1.1175-র স্তরে পৌঁছাতে পেরেছিল।
    মার্কিন অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ ডেটাও, যা 01লা নভেম্বর, শুক্রবার প্রকাশিত হয়, ডলারকে খুব বেশি সাহায্য করেনি। অক্টোবর মাসে কৃষিক্ষেত্র (NFP)-এর বাইরে তৈরি হওয়া নতুন কর্মসংস্থানের সংখ্যা যা পূর্বানুমান করা হয়েছিল তার থেকে বেশি হয়েছে (89K-এর বদলে 128K), কিন্তু তা সেপ্টেম্বরের পরিমাণ 108K-এর তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে কম ছিল। উৎপাদন শিল্পের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সূচক ISM-ও প্রত্যাশার তুলনায় কমই ছিল (48.9-এর বদলে 48.3)। ফলস্বরূপ,  এই জুটিকে টেনে নামানোর বিয়ার-এর প্রচেষ্টা চরম ব্যর্থ হয়, এবং 1.127-এর স্তরে পৌঁছে এই জুটি আবার পিছনে ফিরে যায়, উপরের দিকে ওঠে এবং সপ্তাহটা 1.1165-এ গিয়ে শেষ করে;
  • GBP/USD। Brexit নামক দীর্ঘায়িত ধারাবাহিকে আরও কিছু পর্ব যোগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। ব্রিটেন কখনই EU থেকে বেরিয়ে আসেনি। এই ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, যিনি গত 31শে অক্টোবর Brexit না হলে “আমৃত্যু লড়াই” করবেন বলে অঙ্গীকার করেছিলেন, তার মন পরিবর্তন করেছেন। EU UK-এর জন্য আরেকটু সময় বৃদ্ধির অনুমোদন করেছে, এবং এখন এই দেশ তাদের মেয়াদপূর্তির আগে 12ই ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনের জন্য এগোচ্ছে।
    এই ধারাবাহিকের পরবর্তী পর্ব তাদের সংসদের দ্বারা নির্বাচন সংক্রান্ত আইনে সংশোধনী গ্রহণের ব্যাপারে একনিষ্ঠ থাকবে। আর ব্রিটিশ আইন প্রণেতারা কোন পথে এগোন তার উপর নির্ভর করে, প্রধানমন্ত্রী জনসন ক্ষমতায় থাকবেন কিনা তা নির্ভর করবে।
    Brexit আরও একবার স্থগিত হয়ে গেল এবং 31শে অক্টোবর, বৃহস্পতিবারের মাঝামাঝি সময়ে ডলারকে দুর্বল করে পাউন্ডের অবস্থানকে কিছুটা হলেও শক্তিশালী করে দিল, GBP/USD জুটি 150 পয়েন্ট উঠল, তারপর তা 1.2925-1.2975-এর অলিন্দে একটি অনুভূমিক গতিতে চলতে লাগল এবং 1.2937-এ গিয়ে শেষ করল।
  • USD/JPY। আমরা যেমনটি পূর্বানুমান করেছিলাম, ব্যাংক অব জাপান তাদের সুদের হার -0.1%-এই অপরিবর্তিত রেখে দিল। গত সপ্তাহে ইয়েনের বৃদ্ধির পিছনে তিনটি প্রধান কারণ কাজ করেছিল: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডেরাল রিজার্ভের সুদের হার কমানো, মার্কিন-চীন বাণিজ্য-চুক্তির প্রস্তুতিতে আরেকবার পা পিছলে যাওয়া এবং, সম্ভবত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘমেয়াদি ট্রেজারি বন্ডগুলিতে সম্মিলিতভাবে মজবুত বৃদ্ধি। ব্লুমবার্গের মতে, চীনের দিক থেকে “অনির্ভরযোগ্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প”-এর সঙ্গে কোন গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য-চুক্তির নিষ্পত্তি না-ও করতে চাইতে পারে। ট্রাম্প, তার তরফে, সম্ভবত চীনের সঙ্গে তাদের সম্পর্কে আরও ঝাঁঝ আনতে চাইবেন, যাতে করে রাষ্ট্রপতি পদের জন্য দৌড়ে তিনি মার্কিন অর্থনীতির ক্ষতি না করে ফেলেন। তাই এই যুদ্ধক্ষেত্রে আমরা দীর্ঘকালীন শান্তির পরিবেশ দেখতে পারি।
    এই পরিপ্রেক্ষিতে, গত সপ্তাহের ফলাফলগুলি জাপানের মুদ্রাকে 107.88-র স্তরে নিয়ে যেতে শক্তি জোগাচ্ছিল। তবে, এতে একটা ছোট্ট প্রতিক্ষেপও দেখা গেছিল, যার ফলে এই জুটি সপ্তাহের অন্তিম নোঙ্গর 108.16-এ ফেলে;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। Fundstrat-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং বিশ্লেষক টম লি এই ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী যে, শেয়ার বাজার সরাসরি বিটকয়েনের দরকে প্রভাবিত করে। "গত শুক্রবার (25শে অক্টোবর), কিছু বৃহদায়তন প্রযুক্তি কোম্পানিগুলির শেয়ার দরে বৃদ্ধির কারণে S&P 500 সূচক সক্রিয়ভাবে বাড়তে শুরু করে। বিটকয়েনও উল্লেখযোগ্যভাবে শক্তিশালী হয়। অনেকেই জি পিংয়ের ভাষণের উল্লেখ করেন, কিন্তু বস্তুত শেয়ার বাজারে এই সবকিছুই একত্রে প্রভাব ফেলতে পারত, “ লি বলেন। তবে, তিনি কোনভাবে এই বিষয়টাকে মাথায় রাখেননি যে, প্রযুক্তি ক্ষেত্রের শেয়ার দরে বৃদ্ধির কারণ ডিজিটাল কারেন্সি এবং ব্লকচেইন-এর জনপ্রিয়তা লাভ নিয়ে চীনের রাষ্ট্রপ্রধানের করা মন্তব্যও হতে পারে।
    যেমনটা হতে পারে তেমনটা রেখে, Google Trends-এর দেওয়া একটি প্রতিবেদন মোতাবেক, বিটকয়েনের প্রদর্শনকে (ব়্যালি) ধন্যবাদ, গত সপ্তাহে ক্রিপ্টোকারেন্স সংক্রান্ত ইন্টারনেট রিকোয়েস্ট-এর সংখ্যা গত সপ্তাহে 30 শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু বিটকয়েনের বৃদ্ধি যদি রিকোয়েস্ট-এ বৃদ্ধির কারণ হয়ে থাকে, তাহলে রিকোয়েস্ট-এর বৃদ্ধি বিটকয়েনকে কোনভাবেই প্রভাবিত করেনি। যেমনটি আমরা প্রত্যাশা করেছিলাম, ওই ধরনের টালমাটাল অবস্থার পর, বাজার একটা শান্ত পর্যায়ে চলে গেছিল, অস্থিরতা ক্রমেই শূন্যে নেমে এসেছিল এবং দরগুলি, যেগুলি $9,250-এর অঞ্চলে স্থিতিশীল হচ্ছিল, একটি এমন চিত্র এঁকেছিল যাকে প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণের ভাষায় “পেন্যান্ট” (ধ্বজা) বলে।
    প্রধান ক্রিপ্টোকারেন্সির (BTC/USD) পথে হেঁটেই, অনুরূপ শীর্ষস্থানীয় অল্টকেয়নগুলি যেমন ইথিরিয়াম (ETH/USD), রিপল (XRP/USD) এবং লিটকয়েন (LTC/USD) একই কাজ করে। ক্রিপ্টো বাজারে মোট মূলধনের জোগান কোন ব্যতিক্রমী ঘটনা ছিল না, যেটা যুক্তিগ্রাহ্যই ছিল, এর পরিমাণ সারা সপ্তাহে ক্রমাগত $257 বিলিয়ন থেকে হ্রাস পেতে পেতে $239 বিলিয়নে এসে দাঁড়ায়।

 

আগামি সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, একাধিক বিশ্লেষকদের মতামতগুলোকে, ও সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও গ্রাফিক্সভিত্তিক বিশ্লেষণের বহুবিধ পদ্ধতির ভিত্তিতে করা পূর্বাভাসগুলোকে একত্রিত করে, আমরা নিম্নোক্ত কথাগুলো বলতে পারি:

  • EUR/USD। 1লা নভেম্বর তারিখে, ECB প্রতি মাসে 20 বিলিয়ন ইউরো মূল্যের বাজার সম্পদ ক্রয় করা শুরু করেছে। ওই একই দিনে, প্রাক্তন IMF প্রধান ক্রিস্টিন ল্যাগার্ড মারিও দ্রাঘিকে সরিয়ে এই ব্যাংকের মাথায় বসেন। তার নেতৃত্বে, কিছু বিশেষজ্ঞের মতে, ইউরোপীয় নিয়ামকদের আর্থিক নীতি কিছুটা নরম হয়ে যাবে। যেটা, পরিণামস্বরূপ, ডলারের সাপেক্ষে ইউরো-র পতন ঘটাবে।
    কিন্তু এর একটা বিপরীত ছবিও আছে। এর থেকে এই ইঙ্গিত মেলে যে, ট্রাম্পের চাপের মুখে মার্কিন ফেডেরাল রিজার্ভ সুদের হার শূন্যে নামিয়ে আনবে। এটা ডলারের নগদের সমস্যার সমাধান করে দেবে এবং, মার্কিন বাজারকে শস্তার নগদের জোগান দিয়ে, ট্রাম্পকে দ্বিতীয়বার নির্বাচিত হয়ে আসতে সাহায্য করবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ঋণ, মার্কিন ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের হিসেব অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই $23 ট্রিলিয়নের রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। আর অসুরক্ষিত ডলার আরও ছাপানো হলে তা ডলারকে উল্লেখযোগ্যভাবে আরও দুর্বল করে তুলতে পারে। নির্বাচনের আগে পে-রোল ট্যাক্স কমানোর ট্রাম্পের উদ্দেশ্যও মার্কিন মুদ্রার পতনের কারণ হতে পারে।
    এই পরিস্থিতি বিশ্বব্যাপী কারবারিদের আরও বেশি সতর্ক হতে বাধ্য করবে, যার ফলে EUR/USD জুটির মাসিক অস্থিরতা 4.5% পড়ে যায়। এটা মাত্র দু’বার ঘটেছিল – 2007-এ এবং 2014-এ।
    আমরা যদি একেবারে কাছের ভবিষ্যতের কথা বলি, তাহলে আগামি সপ্তাহে ডলারের পতন এবং ইউরো-র বৃদ্ধির ব্যাপারে বিশ্লেষকদের মধ্যে 60%-এর কাছে প্রত্যাশিত, যাকে H4 এবং D1-এর উপরের অসিলেটর ও প্রবণতার সূচকগুলির (ট্রেন্ড ইন্ডকেটর) 90%-ই সমর্থন করে। এই জুটির জন্য নিকটতম লক্ষ্যটি হল উপরে ওঠা এবং 1.1200-1.1250-এর স্তরে স্থিতিশীল হওয়া। তার পরের লক্ষ্যগুলি হল 1.1350 এবং 1.1410।
    বিশেষজ্ঞদের 40%, যাদের পক্ষে গ্রাফিক্স সহযোগে বিশ্লেষণের সমর্থন রয়েছে, এবং অসিলেটরগুলির 10%, যারা ইউরোপীয় মুদ্রার মাত্রাতিরিক্ত ক্রয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে, ইউরো-র পতনের পক্ষে মত দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে, এই জুটি খুব সম্ভবত 1.1075-1.1175 পার্শ্ববর্তী গতিপথে (চ্যানেলে) চলে যাবে। আর এর নিচের সীমান্ত যদি ভেঙ্গে বেরোতে পারে, তাহলে 1.1000-এর অবলম্বন অঞ্চল কমে যাবে।
    স্থানীয় প্রবণতা তৈরি হওয়ার বিষয়টি পরিষেবা ক্ষেত্রের ISM ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সূচকের দ্বারা প্রভাবিত হতে পারে, যার মান আগামি মঙ্গলবার, 05ই নভেম্বরে জানা যাবে। পূর্বাভাস অনুযায়ী, এটা 52.6 থেকে 53.2-এ বাড়তে পারে, যা অল্প সময়ের জন্য ডলারকে শক্তিশালী করবে;

  • GBP/USD। বৃহস্পতিবার, 07ই নভেম্বর তারিখটা UK-এর জন্য উৎসর্গীকৃত থাকবে। ওই দিন, ব্যাংক অব ইংল্যান্ড সুদের হার সম্পর্কে তাদের সিদ্ধান্ত ও সেই সঙ্গে সম্পদ ক্রয়ের পরিকল্পিত পরিমাণ ঘোষণা করবে। এই পরিসংখ্যানগুলি সম্ভবত অপরিবর্তিতই থেকে যাবে। তাই, ব্যাংকের কর্ণধার মার্ক কার্নির বক্তব্যই বেশি আগ্রহের বস্তু, যার মধ্যে বিনিয়োগকারীরা মেয়াদ শেষের আগে সংসদ নির্বাচন হওয়ার মতো সুনির্দিষ্ট পরিণতির ক্ষেত্রে নিয়ামক সংস্থার আচরণ কেমন হতে পারে সে ব্যাপারে তাদের জিজ্ঞাসার উত্তর খুঁজবে। এমনকি এখানেও, যদিও, কার্নি নিজেকে লন্ডনের আবহাওয়ার মতো কুয়াশাচ্ছন্ন করে রাখতে পারে।
    এই মুহূর্তে, সূচকগুলির বেশিরভাগটাই সুবজ রং রাঙানো রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের 65%-এর প্রত্যাশা হল, উইরো-র উত্থানের পরপরই, পাউন্ডও ডলারের সাপেক্ষে তার অবস্থানকে উন্নত করবে। নিকটবর্তী প্রতিরোধ হল 1.3015, এবং লক্ষ্য হল 1.3125।
    বাকি 35%, সেই সঙ্গে H4 এবং D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ, মনে করে যে, GBP/USD জুটি 1.2790-1.3015-এর অলিন্দেই (করিডোর) থেকে যাবে। এই নিচের সীমানাটি যদি ভাঙ্গে, তাহলে পরবর্তী অবলম্বনের অঞ্চল হবে 1.2700;
  • USD/JPY। আগামি 06ই নভেম্বর, সোমবার হতে যাওয়া ব্যাংক অব জাপান-এর আর্থিক নীতি বিষয়ক কমিটির সভা থেকে কোন চমক আশা করটাও সম্ভব নয়। অধিকন্তু, গত সপ্তাহে নিয়ামক সংস্থা শুধু তাদের গতিপথের অপরিবর্তনীয়তার ব্যাপারেই নিশ্চিত করেনি, বরং তার সময়সীমাকেও তুলে দিয়েছে। এখন সেটা "2020-র আগে নয়,” বরং, "যতদিন দরকার ততদিন"। বর্ং, আগামি মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিষেবা ক্ষেত্রে ISM ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সূচকের দ্বারা ইয়েন প্রভাবিত হবে।
    এই মুহূর্তে, বিশেষজ্ঞদের মতামতগুলি নিম্নরূপে বিভক্ত: 65%-এর মত, যাদের 75% সূচক সমর্থন করছে, এই জুটির পতনের পক্ষে, আর 30%-এর মত, যাদের 25% সূচক সমর্থন করছে, ঊর্ধ্বগতির (বুল) পক্ষে। অবলম্বনের স্তরগুলি হল 107.50 এবং 106.65, প্রতিরোধের স্তরগুলি হল 108.50, 109.00, 109.30 এবং 110.70;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক ড্যারেল ডাফি মনে করেন যে, 10 বছরের মধ্যে, বিটকয়েন এবং অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলি প্রচলিত ব্যাংক ব্যবস্থার স্থান পুরোপুরি দখল করে নেবে। এবং লিব্রা ও অন্যান্য আশাব্যঞ্জক প্রকল্পগুলির উপর নিয়ামক সংস্থার চাপ তৈরি করাটা বিরাট ভুল। ড্যারেল আশংকিত করেছেন, "নিয়ামকেরা যে জুকারবার্গ এবং অন্যান্য ডেভেলপারদের উত্তর দেবার জন্য একটা সর্বজনগ্রাহ্য ভাষা খুঁজে পায়নি তার জন্য তাদের অনুশোচনা হবে। এই রকম অতি বিশাল একটি জনসমুদায়ের (Facebook) একটি ছায়া ক্রিপ্টোকারেন্সি মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে অতি সহজেই প্রচিলত আর্থিক ব্যবস্থাকে টেনে নামিয়ে আনতে পারে।"
    তবে, যখন 10 বছরের সময়সীমা থেকে 7 দিনের সময়সীমায় যাওয়া হয়, তখন বেশিরভাগ বিশ্লেষকের ক্ষিদেই কিন্তু অনেকটাই প্রশমিত হয়ে যায়। অতএব, 50%-ই স্থিতিশীল রেখা  পার্শ্ববর্তী গতির প্রবণতা জারি থাকার অপেক্ষাতে রয়েছে $9,000-9,500-র অলিন্দ বরাবর পার্শ্ববর্তী গতির প্রবণতা জারি থাকার অপেক্ষাতে রয়েছে। 25%-এর বিশ্বাস BTC/USD জুটি $9,700-10,000-র অঞ্চলে পৌঁছাতে পারবে, এবং বাকি 25%, ঠিক তার বিপরীতে, এই জুটিকে $8,100-8,500-র আশেপাশে দেখার প্রত্যাশা করেন।
    মধ্য-মেয়াদি পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, 80% বিশেষজ্ঞের বিশ্বাস এই জুটি $10,500-11,000 অঞ্চলে 2020-র প্রারম্ভিককালের সঙ্গে মিলিত হবে।

 

রোমান বুটকো, NordFX

 

দ্রষ্টব্য: এই বিষয়বস্তুটিকে বিনিয়োগের সুপারিশ অথবা আর্থিক বাজারগুলিতে কাজ করার দিকনির্দেশ হিসেবে বিবেচনা করা উচিৎ হবে না: এগুলির উদ্দেশ্য শুধুমাত্র তথ্য সরবরাহ করা  আর্থিক বাজারগুলিতে কেনা-বেচা করা ঝুঁকিপূর্ণ কাজ এবং তা লগ্নীকৃত অর্থ পুরোপুরি হারানোর কারণ হতে পারে


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)