সেপ্টেম্বর 30, 2019

প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাগুলোর একটা পর্যালোচনা:

  • EUR/USD। ট্রাম্পের জন্য যে বিষয়গুলি খুব খারাপ সেগুলিই আবার ডলারের জন্য বেশ ভাল। কোট চার্টের দিকে তাকালে এইরকমই সিদ্ধান্তে আসতে হয়। এখন, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে হওয়া কথোপকথনের জন্য আমেরিকার রাষ্ট্রপতিকে অভিশংসন বা ইমপিচমেন্টের সম্মুখীন হতে হচ্ছে, আর ডলারের সূচক ইতিমধ্যেই মোটামুটি 99.00 উচ্চতা ছুঁয়ে ফেলেছে। ইউরো আরও 100 পয়েন্ট নেমে EUR/USD জুটির নিম্ন স্তরকে সংশোধিত করেছে এবং তা এপ্রিল 2017-র নিম্ন স্তরে এসে পৌঁছেছে এবং সপ্তাহটা 1.0940-এ শেষ করেছে;
  • GBP/USD। ডলারের বৃদ্ধি শুধু এই কারণেই হচ্ছে না যে, সাবেক বিশ্বে আর্থনৈতিক মন্দ চলছে, বর্ং এই জন্যও যে Brexit নিয়ে দুশ্চিন্তা বেড়েই চলেছে। ব্রিটিশ পার্লামেন্ট কোনভাবেই তাদের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে বাগে আনতে পারছে না, আর অন্য দিকে তিনি তাদের পার্লামেন্ট ও ব্রাসেল উভয়ের সঙ্গেই সংঘাতে জড়িয়ে পড়েছেন, যারা অনুমোদন দিতে রাজি নয়। এই পরিস্থিতিতে, ব্যাংক অব ইংল্যান্ড-এর আর্থিক নীতি বিষয়ক কমিটির একজন সদস্য মাইকেল সন্ডার্স বলেছেন, ব্যাংককে তাদের সূদের হার কমাতে বাধ্য করা হতে পারে, এমনকি কোন সমঝোতা-হীন Brexit এড়ানো না গেলেও।
    আর্থিক ব্যবস্থার এমন “প্রহরী”-র থেকে আসা এই ধরনের মন্তব্যে পাউন্ড আরও নিচে নেমে গেছে। ফলস্বরূপ, যেমনটি বেশিরভাগ (60%) বিশেষজ্ঞ ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, ব্রিটিশ মুদ্রা 200 পয়েন্টেরও বেশি নিচে নেমে যায় এবং সপ্তাহের শেষে প্রতি পাউন্ডের দর ছিল 1.229 মার্কিন ডলার;
  • USD/JPY। মনে করে দেখুন যে, বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞ (65%) ডলারের পতন এবং এই জুটির 105.75-106.75 অঞ্চলে প্রত্যাবর্তনের পক্ষে ভোট দিয়ে নিম্নমুখী গতিকে সমর্থন করেছিলেন। বস্তুত, কারবারের সময়কাল (ট্রেডিং সেশন) শুরুর মুহূর্ত থেকেই এই জুটি পড়ছিল এবং মঙ্গলবার সন্ধ্যের মধ্যে তা স্থানীয় নিম্ন স্তর 106.95-এ এসে পৌঁছেছিল। এরপর, একটা U-টার্ন আসে, এবং এই জুটি সাত দিন আগে যেখানে ছিল আবার সেখানেই ফিরে আসে, তাদের পাঁচ দিনের পর্যায়কাল 107.95-এ সম্পূর্ণ করে।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ঊর্ধ্বমুখী অবস্থা (বুল) সমর্থনকারীরা যে ভয়টা করছিলেন তা-ই ঘটেছিল। সকলেই বুঝেছিল যে, তিন মাস এক জায়গায় থেকে বিটকয়েনের দাম $10,000-এর অঞ্চল থেকে বেরিয়ে যাওয়া উচিৎ, একটা বড়-সড় সাফল্যের মধ্যে দিয়ে। কিন্তু তা কোন দিকে? এই জুটির পতন $8,000 অবধি যেতে পারে বলে আমরা যে পরিস্থিতি সম্পর্কে ঘোষণা করেছিলাম তা 35% বিশেষজ্ঞের সমর্থন লাভ করেছিল, ফলস্বরূপ, তা সঠিক প্রতিপন্ন হয়। গত 24শে সেপ্টেম্বর তারিখে, যে দিনটাকে ইতিমধ্যেই কালো মঙ্গলবার হিসেবে দেগে দেওয়া হয়ে গেছে, মূল ক্রিপ্টোকারেন্সির পতন ঘটে, প্রায় 17% পতন ঘটে $8.115-এ এসে দাঁড়ায়। বিয়ান্স ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ-এর “ক্ষণিকের প্রবাহ” চলাকালীন, কেউ একজন মাত্র $1,800-এ বিটকয়েন কিনতে সমর্থ হয়। হারানো লোকসান ফিরে পাবার ঊর্ধ্বমুখী প্রচেষ্টা প্রতিহত হয়। শুধুমাত্র একটি BitMEX ক্রিপ্টোকারেন্স এক্সচেঞ্জ-এ, মূলত স্টপ অর্ডার ট্রিগারের কারণে, $650 মিলিয়নের “দীর্ঘ” অবস্থা (পজিশন) ক্লোজ করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার, পতন জারি থাকে এবং BTC/USD জুটি $7,700 হরাইজনে পৌঁছেই একমাত্র স্থানীয় নিম্ন স্তরকে খুঁজে পেতে সমর্থ হয়।
    একটি দৃষ্টিভঙ্গি অনুযায়ী, Bakkt প্ল্যাটফর্মে বেচাকেনার অত্যন্ত হতাশাজনক পরিমাণ বাজার ধ্বস নামার সঙ্গে জড়িত, যে প্ল্যাটফর্মের উদ্দেশ্য হল ফিউচার ক্রিপ্টোকারেন্সি বেচাকেনা করা। মনে করে দেখুন সেটা 23শে সেপ্টেম্বর, সোমবার হওয়া শুরু করেছিল এবং প্রথম দিন মাত্র 71টি চুক্তি বিক্রি হয়েছিল, যার প্রতিটির পরিমাণ ছিল 1 BTC করে। ফিউচার ট্রেডিং ক্রিপ্টো ব্যবসাকে সাহায্য করবে বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু তার উল্টোটাই ঘটেছিল, এবং Bakkt শুরুর পরের দিনই এসেছিল “কালো মঙ্গলবার”।
    স্বভাবতই, অতলে তলিয়ে যেতে যেতে বিটকয়েন অল্টকয়েনগুলোকি তার সঙ্গে টেনে নামিয়ে আনে। তাই, ইথিরিয়ামের (ETH/USD) জন্য সপ্তাহের সর্বনিম্ন স্তর $154.3-এ (30% ঋণাত্মক) স্থির ছিল, লিটকয়েনের (LTC/USD) জন্য যা ছিল $50.5 (34% ঋণাত্মক), আর রিপলের (XRP/USD) জন্য যা ছিল -$0.213 (28% ঋণাত্মক)। সাত দিনে ক্রিপ্টোকারেন্সির মোট মূলধন কমেছিল 20%-এরও বেশি, $277 থেকে $218 বিলিয়নে এসে দাঁড়িয়েছিল।

 

আগামি সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, একাধিক বিশ্লেষকদের মতামতগুলোকে, ও সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও গ্রাফিক্সভিত্তিক বিশ্লেষণের বহুবিধ পদ্ধতির ভিত্তিতে করা পূর্বাভাসগুলোকে একত্রিত করে, আমরা নিম্নোক্ত কথাগুলো বলতে পারি:

  • EUR/USD। Brexit নিয়ে ধন্ধ এবং EU থেকে প্রাপ্ত দুর্বল অর্থনৈতিক পরিসংখ্যানের মধ্যেও ডলারের চাহিদা বেড়েই চলে। US ট্রেজারি বন্ডের নিলামি থেকে আসা মজবুত ফলাফল এবং US-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের ফলাফল সংক্রান্ত আশাবাদও একে সমর্থন করে। এইভাবে, গত সপ্তাহে, চীনের বাণিজ্য মন্ত্রী এই আশা ব্যক্ত করেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমঝোতায় দুই পক্ষেরই সুবিধা হয় এমন একটি অবস্থানে এসে পৌঁছানো সম্ভব হবে।
    কিন্তু এই উজ্জ্বল দিকটি ছাড়াও, এই তকমাটির আরেকটি দিকও আছে। যা ট্রাম্প ও তার প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের ডলারের উন্নতিতে তৈরি হওয়া অসন্তোষের মধ্যে নিহিত রয়েছে, যা মার্কিন শিল্পমহলের প্রতিযোগিতাপ্রবণতাকে নেতিবাচকভাবে প্রভাবিত করে। এই প্রসঙ্গে, এই প্রত্যাশা করা যেতেই পারে যে, মার্কিন রাষ্ট্রপতির চাপের কাছে নতিস্বীকার করে ফেডেরাল রিজার্ভ কোয়ান্টিটেটিভ ইজিং (QE) অভিমুখে কিছু পদক্ষেপ নেবে, যা, ডলারের দুর্বল হয়ে যাবার কারণ না হলেও, মার্কিন মুদ্রার আরও শক্তিশালী না হয়ে ওঠার কারণ অবশ্যই হবে।
    এই সপ্তাহে আমরা ইউরোপ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উভয়ের তরফেই প্রচুর অর্থনৈতিক খবরা-খবর পাব। জার্মান কনজিউমার প্রাইস ইন্ডেক্স-এর (30 সেপ্টেম্বর তারিখে) এবং EU-এর (1লা অক্টোবর তারিখে) প্রারম্ভিক মূল্যগুলি প্রকাশিত হবে। তা ছাড়া, মঙ্গলবার এবং বুধবার, মানে যথাক্রমে 1লা ও 2রা অক্টোবর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উৎপাদন এবং পরিষেবা শিল্পগুলির ISM বিজনেস অ্যাক্টিভিটি ইন্ডিসিস প্রকাশিত হবে। আর মাসের প্রথম শুক্রবার, নিয়মমাফিকভাবেই, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজার, সেই সঙ্গে NFP-এর পরিসংখ্যানগুলিও প্রকাশিত হবে। কারবার-সপ্তাহ শেষ হবে ফেডেরাল রিজার্ভের সভাপতি জে. পাওয়েলের ভাষণের মধ্যে দিয়ে।
    বিশেষজ্ঞদের মতামত প্রসঙ্গে, তাদের 55%-ই EUR/USD জুটিতে 1.1000-1.1100 অঞ্চল অবধি একটা সংশোধন দেখবেন বলে আশা করেন। D1 এবং W1-এর উপর অসিলেটরদের 15%-ও এই পরিস্থিতির সপক্ষে, তাদের ইঙ্গিত হল এই জুটি অতিমাত্রায় বিক্রি হয়েছে। বিশ্লেষকদের বাকি 45%, সেই সঙ্গে সূচকগুলির অত্যধিক সংখ্যক, নিম্নমুখী (বিয়ার) দিকেই রয়েছে, তাদের প্রত্যাশা মতো, ডলার আরও শক্তিশালী হবে এবং এই জুটি 1.0800-র হরাইজনে পতিত হবে। নিকটবর্তী অবলম্বন হল 1.0885। D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণের দ্বারা একটি সমঝোতার দিশা দেখানো হয়েছে: প্রথমে 1.0800-র স্তর অবধি একটা পতন হবে, তারপর গতিবিধি 1.0800-1.0885 চ্যানেল অবধি চলবে, এবং পরবর্তীতে তা 1.1000-র উচ্চতায় ফিরে আসবে;
  • GBP/USD। সোমবার, সেপ্টেম্বর মাসের শেষ দিনে, UK GDP-র 2য় ত্রৈমাসিকের ডেটা প্রকাশ করা হবে। এই সূচক 0.7%-এর (-0.2% থেকে +0.5% অবধি) একটি বৃদ্ধি দেখাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। তবে, পাউন্ডের উপর তার একটা দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা নেই, যার বিনিময় দর এখনও Brexit নিয়ে চলা বিভ্রান্তির দ্বারাই নির্ধারিত হচ্ছে, যার তারিখ অবশ্যম্ভাবীভাবেই 31শে অক্টোবর আসতে চলেছে।
    এই পরিস্থিতিতে, বিশেষজ্ঞদের 45%, যাদেরকে D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ এবং একাধিক সূচকও সমর্থন করে, আশা করে এই জুটি 3রা সেপ্টেম্বরের নিম্ন স্তর 1.1960-কে সংশোধনের চেষ্টা করবে। আশু অবলম্বন হল 1.2210, 1.2080, 1.2015 স্তরগুলি।
    বিশ্লেষকদের 25% এই জুটির 1.2300-র পিভোট পয়েন্ট বরাবর আড়াআড়ি গতির সমর্থনে ভোট দিয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের আর 30% এর বৃদ্ধি 1.2500 উচ্চতা অবধি হবে বলে আশা করেছেন। এই ধরনের পূর্বাভাসকে H4 এবং D1-এর উপরের অসিলেটরগুলোর 15% সমর্থন করে, যারা এই জুটির মাত্রাতিরিক্ত বিক্রির ইঙ্গিত দেয়। নিকটবর্তী প্রতিরোধ রয়েছে 1.2385-1.2415 অঞ্চলে;
  • USD/JPY। ইয়েনের ক্ষেত্রে, বিনিয়োগকারীরা মার্কিন-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের পরিণতি এবং অক্টোবরের শেষে ব্যাংক অব জাপানের বৈঠকের ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করে থাকবে, যে বৈঠক দেশের অর্থনীতিকে একটি নিয়ামকগত উদ্যম দিতে পারে। ইয়েনকে ঊর্ধ্বমুখী গতি প্রদান করা হলে তা US বন্ডগুলির আয় কমাতে পারে।
    ইতিমধ্যে, বিশেষজ্ঞদের মতামতগুলি নিম্নরূপে বিভক্ত। বিশেষজ্ঞ ও D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণগুলির 40% এই জুটির পতনের পক্ষে মত দিয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা হল 107.00-র অঞ্চলে অবলম্বনকে ভেঙ্গে বেরিয়ে আসা এবং তারপর 105.75-106.70-এর অঞ্চলে যাওয়া। পরবর্তী লক্ষ্যমাত্রা হল 105.00। বিশেষজ্ঞদের 60%, H4-এর উপরের প্রবণতার সূচকগুলির 100% এবং D1-এর উপর প্রবণতার সূচকগুলির 90% এই জুটির 109.00-র অঞ্চলে পৌঁছানোর ব্যাপারে মত দিয়েছে। নিকটবর্তী প্রতিরোধ হল 108.50;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। মনে হচ্ছে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া জলবায়ু সংক্রান্ত বিবাদও ক্রিপ্টো বাজারে প্রভাব ফেলেছে। আর খ্যাতনামা বিনিয়োগকারী থমাস লি-র ক্রিপ্টো বসন্তের বদলে আরেকটা ক্রিপ্টো শীত আসতে চলেছে। অন্তত বিটকয়েনের 50, 100 বা 200 হাজার ডলারে উঠে আসার গুরুদের যে ভবিষ্যদ্বাণী ছিল তা এখনও ঘটেনি। আর এই ঘটনা যে, $7,700 থেকে বর্তমান প্রতিক্ষেপ না পাওয়া কোন গুরুতর পরিণতি পায়নি এই বিষয়টি এই দিকে ইঙ্গিত করে যে, বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উপভোক্তার খিদের অভাব রয়েছে।
    ক্রিপ্টোকারেন্সির “ফিয়ার অ্যান্ড গ্রিড ইন্ডেক্স” (ভীতি ও লোভের সূচক) বৃহস্পতিবার “12” অঙ্কে পৌঁছেছে, যা “চূড়ান্ত ভীতি”-র সামিল। যারা সূচক নির্মাণ করেন তাদের মতে, “দীর্ঘ” অবস্থান (পজিশন) নেবার এই হল ভাল সময়, তবে, যেমনটি আগেই বলা হয়েছে, তেমন কোন সক্রিয় ক্রয় নেই। আর এটা সম্ভব যে, তারা তখনই কেনা শুরু করবে যখন দাম $7,000-7,400-র অঞ্চলের দিকে এগোবে।

 

রোমান বুটকো, NordFX

 

দ্রষ্টব্য: এই বিষয়বস্তুটিকে বিনিয়োগের সুপারিশ অথবা আর্থিক বাজারগুলিতে কাজ করার দিকনির্দেশ হিসেবে বিবেচনা করা উচিৎ হবে না: এগুলির উদ্দেশ্য শুধুমাত্র তথ্য সরবরাহ করা। আর্থিক বাজারগুলিতে কেনা-বেচা করা ঝুঁকিপূর্ণ কাজ এবং তা লগ্নীকৃত অর্থ হারানোর কারণ হতে পারে।


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)