অগাস্ট 31, 2019

প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাগুলোর একটা পর্যালোচনা:

  • EUR/USD। যেমনটি প্রত্যাশিত ছিল, গত 24-26 আগস্টে G7-ভুক্ত দেশগুলির মধ্যস্থতার বিষয়টি কোনভাবেই বৈদেশিক মুদ্রার বাজারগুলিকে প্রভাবিত করনি। তবে তা অন্যান্য অনেক কারণে প্রভাবিত হয়েছিল যেগুলি, ডোনাল্ড ট্রাম্প যেমনটি আশা করেছিলেন তার বিপরীতে, মার্কিন ডলারকে আরও বেশি শক্তিশালী করেছিল। আমরা তার কয়েকটির উল্লেখ করব। প্রথমটা হল, USA ও চীনের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ বাক্যালাপ, যা বাণিজ্যিক চুক্তির ব্যাপারে আশার আলো দেখায়। আর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ব্যক্তিগত খরচেও বৃদ্ধি হয়েছিল (পূর্বানুমান করা 4.3%-এর বদলে 4.7%), সেই সঙ্গে US ট্রেজারি বন্ডেও আয় ও স্টক সূচকগুলিও বেডে়ছিল। আমরা যদি এর সঙ্গে জার্মানির মুদ্রাস্থীতিতে মন্থরতা এবং ইউরোজোন ইকোনমি (QE)-কে ঠেকনা দেবার জন্য সম্ভাব্য ব্যবস্থাগুলি প্রসঙ্গে ECB-র ভাবী প্রধান ক্রিস্টিন ল্যাগার্ডের বিবৃতিকে যোগ করি, তাহলে আমরা ইউরোপর সাপেক্ষে ডলারের 200 পয়েন্ট বৃদ্ধির কারণ বুঝতে পারব।
    বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞই ইউরো দুর্বল হবে এবং এই জুটির আরও পতন হবে বলে প্রত্যাশা করেছিলেন, যেখানে 1.1025-কে আগস্ট মাসের নিম্ন স্তর লক্ষ্যবিন্দু হিসেবে নির্দেশ করা হয়েছিল।  তবে, জার্মানির খুচরো বিক্রির পতন সংক্রান্ত তথ্যের কারণে (প্রত্যাশিত 1.3%-এর পরিবর্তে 2.1% পতন) এই জুটি আরও নিচে নেমে যায়, মোটামুটি 1.0960-এ, তারপর আবার সামান্য উঠে সপ্তাহের শেষে এই জুটি 1.0990-এ এসে দাঁড়ায়;
  • GBP/USD। গ্রাফিক্স সহযোগে বিশ্লেষণ দ্বারা সমর্থিত 70% বিশ্লেষক গত সপ্তাহের ঊর্ধ্বমুখী (বিয়ার)-এর পক্ষে ছিলেন, ব্রিটিশ মুদ্রার আরও পতনের প্রত্যাশায়। যার ফলে Brexit সংক্রান্ত যে সব খারাপ খবরগুলো বেরিয়ে আসছিল তার পরিণামস্বরূপ ঘটছিল। নতুন প্রধানমন্ত্রীর দ্বারা পার্লামেন্ট স্থগিতকরণ শুধুমাত্র দেশবাসীর মধ্যে অসসন্তুষ্টির একটা ঢেউ-ই তুলে দেয়নি, বরং তা GfK কনজিউমার কনফিডেন্স ইন্ডেক্স-কেও প্রভাবিত করে, যা EU থেকে UK-র বেরিয়ে যাওয়ার পূর্বানুমান করে পড়ে যায়। আয়ারল্যান্ডের বিদেশমন্ত্রী সাইমন কোভেনির মতে, "গ্রেট ব্রিটেনের কাছে Brexit সংক্রান্ত কোন বিশ্বাসযোগ্য প্রস্তাবনা নেই।" ফলস্বরূপ, গত সপ্তাহ ধরে GBP/USD জুটি 130 পয়েন্ট পড়ে, 1.2165-এর স্তরে পৌঁছে গেছে;
  • USD/JPY। গত 23শে আগস্ট, শুক্রবার রাতে দেওয়া ফেডেরাল রিজার্ভের চেয়ারম্যানের বক্তৃতা এই জুটির খাঁড়া পতনের কারণ হয়, এবং, এর পতনে একটা ফাঁক থাকার কারণে, 26শে আগস্ট, সোমবার, এটি 104.45-এ এসে দাঁড়ায়। তবে, তারপর, যেমনটি বিশ্লেষকদের একটা বড় অংশ (70%) প্রত্যাশা করেছিলেন, চীনের সঙ্গে ফলপ্রসূ "টেলিফোনে কথাবার্তা" সংক্রান্ত ট্রাম্পের বিবৃতির পরিপ্রেক্ষিতে, ডলার তার অবস্থান পুনরুদ্ধার করতে শুরু করে, এবং বৃহস্পতিবার একটি শক্তিশালী প্রতিরোধ অঞ্চল 106.60-106.70-এ পৌঁছায়। পাঁচ-দিনের সময়কাল শেষ হলে, এই জুটি তার 106.25 স্তরটি সম্পূর্ণ করে;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। এই বাজারে এই পরিস্থিতিকে আপনি সুখকর বলতে পারেন না, যা, বস্তুত, আমাদের পূর্বাভাসের সঙ্গে পুরোপুরি সামঞ্জস্যপূর্ণ। সপ্তাহ দুয়েক আগের কথা মনে করে দেখুন, বিটকয়েন ফিয়ার অ্যন্ড গ্রিড ইন্ডেক্স পড়ে গিয়ে এক্সট্রিম ফিয়ার-এ চলে এসেছিল এবং 70% বিশ্লেষক BTC/USD জুটির জন্য নেতিবাচক পূর্বাভাস দিয়েছিলেন, এই প্রত্যাশা থেকে যে, এই জুটি পড়ে গিয়ে $9,000-9,500-র অঞ্চলে চলে আসবে। ঠিক তাই-ই হয়েছিল: 29শে আগস্ট, বৃহস্পতিবার, বিটকয়েন স্থানীয় নিম্ন স্তর $9.355-র হাঁতড়াচ্ছিল।
    আপনি যদি খবরের প্রেক্ষাপটকে মাথায় রাখেন, তাহলে ওই ধরনের পতনের দৃশ্যত কোন কারণ নেই। আর আমরা এটি অনুমান করতে পারি যে, চাহিদার অভাবে বিক্রেতারা দ্রুতার সঙ্গে দাম কমাতে শুরু করেছিলেন, এই আশা থেকে যে তা নতুন ক্রেতাদের আকর্ষণ করবে।
    বস্তুত, বিটকয়েন সংক্রান্ত পরিস্থিতি খুব একটা সুখকর নয়, বরং $9,100-র অঞ্চলের উপর ভরসা করে একে এখনও নাটকীয় বলা খুবই কঠিন, এই জুটি এখন জুলাই মাসের নিম্ন স্তর আপডেট করেনি। অল্টকয়েনের পরিস্থিতি, যা অপ্রতিরোধ্যভাবে পড়েই চলেছে, খুবই দুঃখজনক লাগছে। লাইটকয়েন (LTC/USD) তাদের মার্চ 2019-এর স্তরে ফিরে গেছে, গত 10 সপ্তাহে 56% ঝড়ে গিয়ে। ওই একই সময়কালের মধ্যে রিপল (XRP/USD)-এর লোকসানের হিসেবও 50%, এবং এটি বর্তমানে তার দু'বছরের আগের দামে কেনাবেচা চলছে। আর শীর্ষস্থানীয় অল্টকয়েন, এথিরিয়াম (ETH/USD) 54% শতাংশ হারিয়েছে। সর্বিকভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে মূলধনের জোগানের ক্ষেত্রে, উক্ত 10 সপ্তাহের মধ্যে তাতে 32% ঘাটতি এসেছে, $367 বিলিয়ন থেকে $250 বিলিয়ন।

  

আগামি সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, একাধিক বিশ্লেষকদের মতামতগুলোকে, ও সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও গ্রাফিক্সভিত্তিক বিশ্লেষণের বহুবিধ পদ্ধতির ভিত্তিতে করা পূর্বাভাসগুলোকে একত্রিত করে, আমরা নিম্নোক্ত কথাগুলো বলতে পারি:

  • EUR/USD। গত সপ্তাহে US প্রেসিডেন্ট এবং চীনা নেতৃত্বের তরফে দেওয়া শান্তিপূর্ণ বিবৃতিগুলির পরও 1লা সেপ্টেম্বর থেকে শুল্ক বৃদ্ধির ব্যাপারে ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে বাতিল করা হয়নি। যেখানে শুধুমাত্র 15ই ডিসেম্বর পর্যন্ত তা স্থগিত রাখার ব্যাপারে তার প্রতিশ্রুতি ছিল। তাই, এই দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য-যুদ্ধের অবসান হয়ে যাওয়ার খবরে খুব একটা বাস্তবতা নেই। তাছাড়া কার প্রশমন-নীতি, ECB-র নাকি ফেডেরাল রিজার্ভের, অপেক্ষাকৃত বেশি নরম হবে তাও সন্দেহজনক। বিনিয়োগকারীরা এই প্রশ্নের আংশিক উত্তর আগামি 3রা সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার ক্রিস্টিন ল্যাগার্ডের ভাষণ ও আগামি 6ই সেপ্টেম্বর, শুক্রবার জেরোম পাওয়েলের ভাষণ থেকে পাবার আশা করছেন।
    এছাড়াও আপনাদের চীনের উৎপাদন ক্ষেত্রের PMI Caixin-এর সূচকের মানের দিকেও নজর রাখতে হবে, যার মাধ্যমে এই দেশের অর্থনীতির প্রতি ব্যবসায়িকদের প্রত্যয়ের প্রতিফলন ঘটে এবং যা 02রা সেপ্টেম্বর, সোমবার প্রকাশিত হবে। আগামি মঙ্গলবার এবং বুধবার US-এর ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের ডেটা (ISM) প্রকাশ করা হবে, এবং শুক্রবার প্রথাগতভাবে মার্কিন শ্রম-বাজারের ডেটা প্রকাশ করা হবে। পূর্বাভাস অনুসারে, কৃষিক্ষেত্র (NFP)-র বাইরে নতুন কর্মসংস্থান কিছুটা কমতে পারে, 164K থেকে 159K-এ, যার প্রভাব ডলারের উপর পড়বে এমন খুব একটা সম্ভাবনা নেই।
    পূর্বাভাসের ডেটা অনুযায়ী, বেশিরভাগ বিশ্লেষক (55%) প্রত্যাশা করেন EUR/USD পরের সপ্তাহে 100960-1.1050-স্তরে 1.1000 বরাবার পার্শ্বিক অবস্থানে থাকবে। 25%, অসিলেটরগুলির 90% এবং প্রবণতা সূচকগুলির 100% দ্বারা সমর্থিত, বিশ্লেষক প্রত্যাশা করেন যে, এই জুটি তার সমতার রাস্তায় গিয়ে 1.0960-র অবলম্বন ভেঙ্গে বেরিয়ে যেতে সক্ষম হবে এবং 1.0875-1.0925 অঞ্চলে এসে পড়বে। অবশিষ্ট 20%-র বিশ্বাস, এই জুটির আরও সংশোধন হবে এবং তা 1.01250-র স্তরে উঠে আসবে। এই পরিস্থিতিটিকে D1-এর উপর 10% অসিটেলর সমর্থন করে, এর মাত্রাতিরিক্ত বিক্রির সংকেত দিয়ে। এটি খেয়াল করা উচিৎ যে, মধ্য-মেয়াদি পূর্বাভাসের দিকে এগিয়ে যাবার পথে, ইউরো-র শক্তিশালী হবার সপক্ষে বক্তার সংখ্যা 60% বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সঙ্গে, বিশ্লেষকেরা এই জুটির 1.1400-1.1500-র স্তরে ফিরে আসার অপেক্ষা করেছেন;
  • GBP/USD। বর্তমানে, US ডলারের সাপেক্ষে পাউন্ডের তিন মাসের অস্থিরতা হল 14%। শেষবার এটা এতটা উচ্চতায় সেই সময় ছিল যখন থেরেসা মে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে EU-এর সাথে চুক্তি অনুমোদনের চেষ্টা করেছিলেন। এইবার তার উৎস হল তার উত্তরসূরী বরিস জনসন এবং প্রত্যাশিত কঠোর Brexit।
    বর্তমান পরিস্থিতিতে, আগের মতোই, বেশিরভাব (60%) বিশেষজ্ঞই পাউন্ডের জন্য ভাল কিছু প্রত্যাশা করেন না। H4 ও D1-এর উপরের সূচকগুলির 90%-এর রিডিং H4-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণের সঙ্গে একমত, এগুলির বক্তব্য অনুযায়ী, এই জুটি আবার 12ই আগস্টের নিম্ন স্তরকে পরীক্ষা করে দেখবে। - 1.2015। D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ এই জুটির আরও পতনের সম্ভাবনাকে নির্দেশ করে - অক্টোবর 2016-এর নিম্ন স্তর 1.1945-কে। নিকটবর্তী অবলম্বন হল 1.1260;
    বিশ্লেষকদের বাকি 40%, সেই সঙ্গে অসিলেটরগুলির 10%, মনে করেন যে, এই জুটি ইতিমধ্যেই অতিমাত্রায় বিক্রি হয়েছে এবং তাদের প্রত্যাশা মতো এটি 1.2420-1.2550-র শ্রেণিতে ফিরে যাবে। তাদের পূর্বাভাসকে Brexit প্রসঙ্গে EU-এর সঙ্গে ইতিবাচক সমঝোতার ক্রম সংক্রান্ত আশা আরও মজবুত করছে।
  • USD/JPY। জাপানের দুর্বল অর্থনৈতিক পরিসংখ্যান, সেই সঙ্গে চীন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যেকার বাণিজ্য-যুদ্ধ কিছুটা স্তিমিত হওয়ায়, ইয়েনের প্রতি আগ্রহ কিছুটা কমিয়েছে। আর তাই বিশ্লেষকদের 70% প্রত্যাশা করেন এই জুটি আরও বৃদ্ধি পেয়ে 107.00-107.70-র স্তরে পৌঁছে যাবে। পরবর্তী লক্ষ্য, D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ অনুযায়ী, হল 108.75।
    বিপরীত মতামতগুলির ক্ষেত্রে, ঊর্ধ্বমুখী গতির সপক্ষে বক্তাদের যুক্তি হল জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের 10-বছর মেয়াদি বন্ডগুলির আয়ের বিস্তার নভেম্বর 2018-র পর থেকে আনুমানিক 135 পয়েন্ট কমে গেছে এবং ইয়েনের শক্তি ডলারের সাপেক্ষে 7% বৃদ্ধি পেয়েছে (114.5 থেকে 106.00)। আর এই শক্তি বৃদ্ধির প্রবণতা ভালভাবেই জারি থাকতে পারে। মধ্যবর্তী লক্ষ্য হল 104.80-র অবলম্বনকে ছাপিয়ে যাওয়া। যার পরবর্তীতে, মধ্যবর্তী মেয়াদে, জাপনি মুদ্রা একটি উল্লেখযোগ্য স্তর 100.00-তেও পৌঁছে যেতে পারে।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। জ্যাকসন হোল (USA)-এ একটি অর্থনৈতিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড-এর প্রধান, মার্ক কার্নি, একটি অপ্রত্যাশিত বিবৃতি দেন। তিনি মার্কিন মুদ্রার প্রভূত্ব এবং আরেকটি রিজার্ভের, যেমন চীনা ইউয়ানের, উঠে আসার সম্ভাবনা এই দুয়ের ব্যাপারেই অত্যন্ত নেতিবাচক কথাবার্তা বলেন। UK-র প্রধান ব্যাংকের কর্ণধার বলেন, ডলারের বদলে Facebook দ্বারা সম্প্রতি চালু করা অনুরূপ ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সি চালু করা উচিৎ, যেমন লিব্রা। ডলার, ইউয়ান, লিব্রা এবং তার "দেশীয়" মুদ্রা পাউন্ড সংক্রান্ত তার স্বপ্ন কোন দিন বাস্তবায়িত হবে কিনা তা জানা নেই, এখনও অবধি, যা তিনি উল্লেখ করেছেন, তার মতে ডলার যেটা সবচেয়ে ভাল বলে মনে হচ্ছে না, যা তার পছন্দ নয়।
    উপরে যেমনটি বলা হল, BTC/USD জুটি গত সপ্তাহে $9,100-র অঞ্চলে এসে গেছিল যা গত জুলাই মাসের নিম্ন স্তরের কাছাকাছি। শেষবার, বিটকয়েন $11,080 এবং তারপর $9,100 স্তরে অবলম্বন পেয়েছিল এবং লড়াই চালিয়ে গেছিল।  সেই রকমই কিছু এবারেও ঘটবে কিনা তা অনেককাংশে নির্ভর করে প্রধান প্রধান প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের উপর। এছাড়াও বাক্ত (Bakkt) চালু হওয়ার কারণেও বিটকয়েন অবলম্বন পেতে পারে, আন্তঃমহাদেশীয় বিনিময় বা ইন্টারকন্টিনেন্টাল এক্সচেঞ্জ (ICE)-এর দ্বারা তৈরি একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি ইকোসিস্টেম। $9,000-9,100-র অবলম্বনকে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ভেঙ্গে বেরিয়ে আসার ক্ষেত্রে, এই জুটি সম্ভবত $7,450-8,200-র অঞ্চলে পড়ে যাবে।
    কিন্তু দুই ক্ষেত্রেই অল্টকয়েনের ভবিষ্যৎ অন্ধকারাচ্ছন্ন দেখাচ্ছে। বিটকয়েন-কে যদি পড়তেই হয়, তাহলে সার্বিকভাবে গোটা ক্রিপ্টোকারেন্সি বাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহেরও পতন হতে হবে। আর বিটকয়েন যদি বাড়তে শুরু করে, তাহলে উল্লেখিত ক্রিপ্টোকারেন্সির জন্য অল্টকয়েনের সক্রিয় একটা বিনিময় আমরা প্রত্যাশা করতে পারি।

 

রোমান বুটকো, NordFX

 

দ্রষ্টব্য: এই বিষয়বস্তুটিকে বিনিয়োগের সুপারিশ অথবা আর্থিক বাজারগুলিতে কাজ করার দিকনির্দেশ হিসেবে বিবেচনা করা উচিৎ হবে না: এগুলির উদ্দেশ্য শুধুমাত্র তথ্য সরবরাহ করা। আর্থিক বাজারগুলিতে কেনা-বেচা করা ঝুঁকিপূর্ণ কাজ এবং তা লগ্নীকৃত অর্থ হারানোর কারণ হতে পারে।


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)