ফেব্রুয়ারী 9, 2019

-প্রথমে গত সপ্তাহের ঘটনাবলী পর্যালোচনা করা যাকঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। যদিও 30% বিশেষজ্ঞ দ্বারা সমর্থিত বিভিন্ন ঘটনাপূর্ণ পরিস্থিতির একটি এই মুদ্রাজুড়ির মধ্যবর্তী-মেয়াদের 1.1300-1.1500-এর চ্যানেলের নিম্নতর সীমায় অবনতির পূর্বাভাস করেছিলেন। আর ঠিক তাই ঘটেছিল। প্রায় 130 পয়েন্ট খুঁইয়ে এই মুদ্রাজুড়ি 1.1320-এর স্তরে সাপ্তাহিক নিম্ন অবস্থানের রেকর্ড করেছিল।
    ডলারের শক্তিশালী হবার কারণে এবং, ফলস্বরূপ, এই মুদ্রাজুড়ির পতনের কারণটি হল ইউএস-চীনের বাণিজ্য দ্বন্দের সমাধানে ক্রমবর্ধমান হতাশা ঝুঁকি-বিরোধী মনোভাব এবং ইউরোজোনের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির ততটা অনুকূল প্রত্যাশা না থাকা। এইরূপে, ইউরোপীয়ান কমিশন, তার পূর্বাভাসে "উল্লেখযোগ্য ঝুঁকি"-র প্রসঙ্গ তুলে জিডিপির বৃদ্ধি 2019 সালে 1.9% থেকে 1.3% পর্যন্ত এবং 2020 সালে 1.7% থেকে 1.6% পর্যন্ত উল্লেখযোগ্যভাবে কম দেখিয়েছে। এরকম সামঞ্জস্যবিধান উল্লেখযোগ্যভাবে ইউরো-র উপর চাপ বাড়িয়ে শেয়ারবাজারকে বোঝাতে পেরেছে যে এই বছরে সুদের হারের কোন বৃদ্ধির আশা করা উচিৎ হবে না।
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। ইউরোপীয়ান কমিশনের সাথে একসাথে, ব্যাংক অফ্ ইংল্যাণ্ডও ঘোষণা করেছিল যে তাদের পূর্বেকার পূর্বাভাস খুবই আশাপ্রদ ছিল, এবং ব্রেক্সিটের বিষয়ে স্পষ্টতার অভাব দেশের অর্থনীতির উপর একটি বোঝা হয়েছে। ব্যাংকের বিশেষজ্ঞরা আশা করেছেন যে বৃদ্ধির হার গত 10 বছরের মধ্যে সবথেকে কম হবে, যার ফলে 2019 সালের জন্য ইউকে-এর জিডিপির পূর্বাভাস কমে গিয়ে 1.7% থেকে 1.2% পর্যন্ত হ্রাস পেয়েছে। এই নেতিবাচক খবরে পাউণ্ডের তীব্রভাবে পতন হয়েছিল, এবং যেমন 65% বিশেষজ্ঞরা আশা করেছিলেন, এই মুদ্রাজুড়ি 1.2850-এ পৌঁছিয়েছিল। তারপরে একটি প্রবন্ধের দ্বারা ইইউ থেকে ব্রিটিশ প্রস্থানের আলাপ-আলোচনার সম্ভাব্য উন্নতি এবং আয়ারল্যাণ্ডের জন্য বিশেষ পরিস্থিতির পশ্চাদপটে এই জুড়ির দর সামান্য পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছিল, আর তারপরে আবার ডুবে গিয়েছিল এবং 1.2940-এ এই মুদ্রাজুড়ি পাঁচদিনের সপ্তাহটি শেষ করেছিল; 
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। বেশীরভাগ বিশেষজ্ঞরা (70%) D1-তে রৈখিক বিশ্লেষণের সহায়তায় দরের শক্তিশালী ওঠানামা হবে বলে আশা করেছিলেন এবং এই মুদ্রাজুড়ির 108.00-108.55-এর অঞ্চলে পতনের পূর্বাভাস করেছিলেন, যার পরে এই জুড়ির 110.00-এর দিগন্তে ফিরে আসা উচিৎ হবে। তবে, পূর্বাভাসের বিপরীতে গিয়ে এই মুদ্রাজুড়ি খুব শান্ত আচরণ করেছিল, এবং দোদুল্যমান দোলকের সর্বোচ্চ বিস্তার 60 পয়েন্ট অতিক্রম করে নি। পরপর টানা তিন সপ্তাহ ধরে, বারংবার, এই মুদ্রাজুড়ি 109.55-110.00-এর অঞ্চলে ফিরে এসেছিল। এইবার আবারও, 109.55-এর স্তর থেকে সাপ্তাহিক লেনদেন শুরু করে, এই মুদ্রাজুড়ি 109.75-এর স্তরে থেমেছিল;  
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। আমরা গত সপ্তাহে বিশেষজ্ঞদের দুইভাগে বিভক্ত করেছিলাম। প্রথমটি হল তাদের যারা বিশ্বাস করেন যে বর্তমান শান্তভাব হল ঝড় আসার পূর্ব লক্ষণ। দ্বিতীয় গোষ্ঠী মনে করেন যে এটি হল আগের সমাহিত ভাব...এমনকি আরো শান্ত। সমস্ত সপ্তাহ ধরে Bitcoin-এর দর মসৃণ এবং শান্তভাবে পড়ে যাচ্ছিল এবং বুধবার, 6ই ফেব্রুয়ারীতে নিম্ন অবস্থান 3,400$-এ পৌঁছিয়েছিল। তারপরে একটি খুব ধীরলয়ে  “দিক” অনুসরণ করেছিল, এবং শুক্রবার বিকালে এটি  “ঝটকা” দিয়েছিলঃ BTC/USD ক্রিপ্টোজুড়ি উপরে উঠে গিয়েছিল, এবং কয়েক ঘন্টার মধ্যে প্রায় 12% বৃদ্ধি পেয়েছিল এবং 3,800$-এর স্তরে পৌঁছিয়ে গিয়েছিল।
    এটি কি ঝড়ের পূর্বাভাস? যদি আপনি রেখচিত্র H1-এর দিকে তাকান, এটি অবশ্যই তাই। তবে, দৈনন্দিন সময়সীমায় সবকিছু চিত্তাকর্ষক নয়ঃ এই মুদ্রাজুড়ি সবেমাত্র সুসংহত রেখায় ফিরেছে (অথবা মূল বিন্দুতে),  যেটির বরাবর এটি বিগত 11 সপ্তাহ ধরে ইতিমধ্যেই ওঠানামা করছে, যা নভেম্বর 2018 সালের শেষ থেকে শুরু হয়েছিল।
    এই বৃদ্ধির কারণ হল চারজন SEC কমিশনারের একজন রবার্ট জ্যাকসনের ট্যুইটারে প্রকাশিত হওয়া একটি টুকরো খবর, যিনি বলেছিলেন যে ইউএস সিকিউরিটিস এবং এক্সচেঞ্জ কমিশন এখনও Bitcoin-ETF তহবিল শুরু করার অনুমতি দিতে পারে।
    Bitcoin (BTC/USD)-এর পথ অনুসরণ করে,বাকি শীর্ষ ক্রিপ্টোমুদ্রাগুলিও উপরে উঠেছিল। Litecoin (LTC/USD) দ্বারা সবথেকে বেশী বৃদ্ধি প্রদর্শিত হয়েছিল, সর্বোচ্চ 40% বৃদ্ধি পেয়ে এবং 46.0 0$-এর দরে পৌঁছিয়ে গিয়ে। Ethereum 124.70$-এর স্তরে উঠেছিল, এবং Ripple (XRP/USD) 0.3250$-এর উচ্চতায় উঠেছিল।

 

-আসন্ন সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, অনেক বিশ্লেষকদের মতামতের সাথে সাথে প্রাযুক্তিক ও রৈখিক বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে কৃত পূর্বাভাসগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে আমরা নিম্মলিখিত বক্তব্য রাখছিঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। এটি স্পষ্ট যে দক্ষিণদিশার দিকে সপ্তাহব্যপী যাত্রার পরে, বেশীরভাগ নির্দেশকরা লাল রং দেখাচ্ছে। তবে, ইতিমধ্যে, H4 এবং D1-তে প্রায় 25% দোদুল্যমান সূচক সিগন্যাল দিচ্ছে যে এই মুদ্রাজুড়ির অধিক বিক্রয় হয়েছে, যার অর্থ হল যে অন্ততপক্ষে একটি আসন্ন শক্তিশালী সংশোধন হবে, যদি না এই প্রবণতার সম্পূর্ণ বিপরীত কিছু ঘটে।
    পরবর্তী পাঁচ দিনের রৈখিক বিশ্লেষণ 1.1285-1.1400-এর পরিসরে তির্যক গমনাগমন দেখাচ্ছে, যার পরে এই মুদ্রাজুড়ির এই মাসের শেষে 1.1500-এর অঞ্চলে মাঝারি-মেয়াদের উর্ধ্বতর সীমানায় ফেরৎ আসা উচিৎ হবে।
    বিশেষজ্ঞদের গোষ্ঠী এখনও কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারে নিঃ 50% বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন যে এই মুদ্রাজুড়ির পতন হবে, 50% বিশেষজ্ঞরা এর বৃ্দ্ধি হবে বলছেন, যা ব্রেক্সিট এবং ইউএস-চীনের আলাপআলোচনার স্পষ্টতার অভাবের কারণে পরিলক্ষিত হচ্ছে। এছাড়াও, আসন্ন সপ্তাহের ঘটনাপঞ্জীর কারণে তাদের নিজেদের সামঞ্জস্যবিধান করতে পারে। এখানে, আমাদের অবশ্যই জার্মানী এবং ইউ-এর জিডিপির ডেটা 14ই ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবারে ঘোষণা হবার কথা মনে রাখার সাথে সাথে 13ই এবং 14ই ফেব্রুয়ারীতে ইউএস-এর মুদ্রাস্ফীতি এবং খুচরো বিক্রয়ের খবরও মনে রাখা উচিৎ হবে।
    এছাড়াও, মঙ্গলবার, 12ই ফেব্রুয়ারীতে, ফেডারেল রিজার্ভের প্রধান জে. পাওয়েলর সম্ভাব্য সুদের হারের বৃদ্ধির ইঙ্গিতের প্রতি শেয়ারবাজার তাকিয়ে থাকবে। ইতিমধ্যে, আমেরিকায় মন্দা পরিস্থিতির সম্ভাবনার স্তরের 20% বৃদ্ধি পেয়েছে, এবং এটি সম্ভব যে সুদের হারের বিষয়টি ভাল সময়ের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হবে। ইইউ এবং ইউকে নিয়ন্ত্রকরা আর্থিক বৃদ্ধির ঝুঁকির বিষয়ে ক্রমাগত বলে চলেছেন, যার জন্য সহজ আর্থিক নীতির প্রয়োজনীয়তার দাবি করা উচিত হবে।
    অনেক বিশেষজ্ঞদের মতে, শেয়ারবাজার থেকে শেয়ার কেনার কথা বিবেচনা করার এটি কারণ হবে, কারণ আর্থিক বৃদ্ধি ধীরে করার সাথে সাথে সস্তা আর্থিক অবস্থা বজায় রাখার কারণে সেগুলির মূল্যের বৃদ্ধি পেতে পারে। এখানে সবথেকে বিশ্বস্ত এবং আশাপ্রদ বিশ্বজনীন সংস্থার বিনিয়োগ পোর্টফোলিওর প্রতি মনোযোগ দেওয়াটা যুক্তিযুক্ত হবে যা NordFX-এর মত ব্রোকারেজ সংস্থা তাদের গ্রাহকদের সুযোগ দিয়ে থাকে;
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। সোমবার, 11ই ফেব্রুয়ারীতে, জিডিপি-র ডেটা প্রকাশিত হবে, এবং বুধবার, 13ই ফেব্রুয়ারীতে, ইউকে-র মুদ্রাস্ফীতির বিষয়ে ডেটা প্রকাশিত হবে। খুব সম্ভবত,তারা দেশের অর্থনীতির বৃদ্ধির ধীরলয় গতির প্রতি ইঙ্গিত করবে, যা ইতিমধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে। এইরূপে, পূর্বাভাস অনুযায়ী, জিডিপি বৃদ্ধির বিগত ত্রৈমাসিকের তুলনায় 0.6% থেকে 0.2%-এ হ্রাস পাবে বলে মনে করা হয়। কিন্তু, পরপর অনেক মাসের মত, ব্রেক্সিটের বিষয়ে খবর ও গুজবের দরের উপরে এক গরিষ্ঠ প্রভাব থাকবে। আরেক ধরণের গুজব শোনা যাচ্ছে যে কয়েকটি আর্ন্তজাতিক সংস্থা ব্রিটিশ মুদ্রা কিনছে, যা ব্লুমবার্গ সাবধানতার সাথে ইঙ্গিত দিয়েছিল, এবং এর কারণে পাউণ্ডের কিছুটা সমর্থন মিলেছে।
    এই মুহূর্তে, 60% বিশ্লেষক পাউণ্ডের শক্তিশালী হবার বিষয়ে এবং এই মুদ্রাজুড়ির 1.3040-এর দিগন্তে বৃদ্ধি পাবার বিষয়ে ভোট দিয়েছে, এবং তারপরে আরো 80-100 পয়েন্ট উঁচুতে যাবার। পক্ষান্তরে, বাকি 40% বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন যে এই মুদ্রাজুড়ির অন্ততপক্ষে 1.2830-এর স্তরে পতন হওয়া উচিৎ হবে। কিন্তু H4-তে রৈখিক বিশ্লেষণ এক সমঝোতার অবস্থান নিয়েছে এই ইঙ্গিত দিয়ে যে এই মুদ্রাজুড়ির প্রথমে 1.2830-এর স্তরে পতন হতে পারে, এবং কেবলমাত্র তারপরেই বৃদ্ধির দিকে গিয়ে 1.3040-এর উচ্চতায় পৌঁছাতে পারে;   
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। বর্তমান রং হল ধূসর, অর্থাৎ নিরপেক্ষ, বিশেষজ্ঞ এবং নির্দেশক উভয়েরই দ্বারা। এই স্কেলের একপ্রান্তে রয়েছে বিশ্বের বৃহৎ মুদ্রার তুলনায় ইউএস ডলারের শক্তিশালী হওয়া। অন্যদিকে রয়েছে, বিশ্ব অর্থনীতির ক্রমবর্ধমান ধীরগতি হবার ঝুঁকি এবং আমেরিকা ও চীনের মধ্যেকার আরেক প্রস্থ চাপা উত্তেজনা, যার কারণে জাপানীজ ইয়েনের মত নিরাপদ স্বর্গীয় মুদ্রার প্রতি চাহিদা বৃদ্ধির দাবি রয়েছে। এই মুদ্রাজুড়ি সারা সপ্তাহ ধরে 109.55-110.15-এর সংকীর্ণ পরিসরে থাকতে সক্ষম হয়েছে, যার অর্থ হল বাজারের সম্পূর্ণ অনিশ্চয়তা এবং এই মুহূর্তে কোন পূর্বাভাস করা ঠিক হবে না;
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। SEC কমিশনার রবার্ট জ্যাকসনের পুরো সাক্ষাৎকার এই সপ্তাহে প্রকাশিত হবে এবং এর বিষয়বস্তু ক্রিপ্টোমুদ্রার দরকে আবারও ওঠাতে পারে বা বিপরীতও হতে পারে। সব সত্ত্বেও, আপনি যাই বলুন না কেন, সিকিউরিটিস এবং এক্সচেঞ্জ কমিশন Bitcoin-ETF শুরু করার আবেদনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবার জন্য প্রায় 240 দিন পাচ্ছে, এবং এই সময়ে অনেক কিছু ঘটতে পারে।
    ইতিমধ্যে, বিশেষজ্ঞরা 3,250-3,800$-এর পরিসরে BTC/USD-এর গমনাগমনকে ক্রিপ্টোমুদ্রার মূল চিত্রনাট্য বলে মনে করছেন। তবে, তারা উচ্চতর সীমায় স্বল্প-সময়ের জন্য ভেঙ্গে পড়ার এবং এই ক্রিপ্টোজুড়ির 4,000 $-এর স্তরে বৃদ্ধি পাবার সম্ভাবনা বাদ দিচ্ছেন না।

 

-রোমান বাটকো, NordFX

 

-বিজ্ঞপ্তিঃ এই লেখনীগুলিকে আর্থিক বাজারে লেনদেন করার জন্য বিনিয়োগ বা নির্দেশিকার সুপারিশ হিসাবে গণ্য করা উচিত হবে নাঃ এগুলি শুধুমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং ঝুঁকিপূ্র্ণ এবং এতে গচ্ছিত অর্থের সম্পূর্ণ ক্ষতি হতে পারে।  


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)