জানুয়ারী 26, 2019

-প্রথমে গত সপ্তাহের ঘটনাবলী পর্যালোচনা করা যাকঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। 24শে জানুয়ারী, বৃহস্পতিবারে, ইসিবির প্রধান মারিও দ্রাঘির "ধূর্ত" আড়ম্বরপূর্ণ ভাষা কিছুক্ষণের জন্য 1.1300-1.1500-এর পার্শ্ববর্তী চ্যানেলের নীচের সীমায় এই মুদ্রাজুড়িকে ঠেলে ফেলে দিয়েছিল। তবে, মন্দাবাজারের আনন্দ বেশীক্ষণ থাকে নিঃ 1.1289-এর স্তরে পৌঁছাবার পরে, এই মুদ্রাজুড়ি ঘুরে দাড়িয়েছিল এবং শুক্রবারের সন্ধ্যার মধ্যে 1.1400-এর অঞ্চলে চ্যানেলের কেন্দ্ররেখায় ফেরৎ এসেছিল। ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করার পরে যা বোধগম্য হয়েছিল তা হলঃ দ্রাঘি বিশেষ আলাদা কিছু বলেন নি। শ্রমবাজারের কিছুটা শক্তিশালী হওয়া এবং ইউরোজোন অর্থনীতির ঝুঁকির হ্রাস লক্ষ্য করে, ইসিবি-র প্রধান বললেন যে এখন কোন নতুন কিউই (QE) অনুষ্ঠান করার অর্থ নেই। আর ঠিক একই সময়ে, ইউরোর উপরে সুদের হারের প্রথম বৃদ্ধির সময়সীমা অপরিবর্তিতই ছিল।
    ডলারের কথা বলতে গেলে, পরিস্থিতি ঘুরে গিয়েছিল। ওয়াল স্ট্রীট জার্নালের সাম্প্রতিকতম প্রকাশনায় বিনিয়োগকারীদের এই মতামতকে শক্তিশালী করেছিল যে ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ শীঘ্রই আর্থিক নীতির চক্রটিকে সম্পূর্ণ করবে, এবং এটি বিশ্লেষকরা যা আশা করেছিলেন তার থেকে আগেই ঘটবে।
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। পাউণ্ডও ব্রেক্সিট-এর এক  "নরম"  সংস্করণ-এর আশায় এরই সাথে এগিয়ে চলছিল। ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড দি সান-এর এক প্রবন্ধে গুজব আরো তাজা হয়ে উঠেছিল এক অসমর্থিত(!) খবরে যে আয়ারল্যাণ্ডের জন্য কোন বিশেষ শর্ত দেওয়ার বিষয়ে থেরেসা মে-র প্রারম্ভিক চুক্তিকে হয় তো ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি সমর্থন করবে। এরকম এক অনবরত গুজব শোনা যাচ্ছে যে ধারা 50-এর ভিত্তিতে
    ইইউ-এর সাথে হয়তো এক সম্ভাব্য দীর্ঘ বিলম্বের চুক্তি হতে পারে। মঙ্গলবার, 29শে জানুয়ারী গ্রেট ব্রিটেনের পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে বোঝা যাবে তার কোন সারবত্তা আছে কি না। এর মধ্যে, ইউরো, ইয়েন এবং ডলার সহ অন্য সব বৃহৎ মুদ্রার তুলনায় পাউণ্ডের এক স্থায়ী বৃদ্ধি দেখিয়েছে। 1.3000 এবং 1.3100-এর স্তর ভেঙ্গে ফেলার পরে, শুক্রবার, 25শে জানুয়ারীতে GBP/USD মুদ্রাজুড়ি 1.3200-এর উচ্চতায় উঠে এই সপ্তাহে 300 পয়েন্ট উপরে উঠে গিয়েছিল;
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকি নেওয়ার ক্ষিধে বৃ্দ্ধি বজায় থাকা সত্ত্বেও, জাপানী মুদ্রার পতন বন্ধ হয়ে গিয়ছিল। এই মুদ্রাজুড়ি 109.14-110.00-এর এক সংকীর্ণ প্রান্তের পার্শ্ববর্তী দিকে গমনাগমন করেছিল এবং এই সংকীর্ণ প্রান্তের মাঝ বরাবর 109.50-এর অঞ্চলে এই সপ্তাহটিতে শেষ করেছিল;
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। এই বাজারের শান্ত সমাহিত অবস্থা বজায় ছিল, মূলধনের বিনিয়োগ বৃদ্ধি পায় নি, এবং বৃহৎ ক্রিপ্টোমুদ্রাগুলির হার পার্শ্বদিকের প্রবণতা দেখিয়েছিল। জেপি মরগ্যান বিশ্লেষকদের সমালোচনা বা দাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের অনেক অংশগ্রহণকারীদের সমালোচনা যারা সম্পূর্ণরূপে Bitcoin-কে সমাধিস্থ করেছিল, অথবা শিকাগো CBOE এক্সচেঞ্জ থেকে Bitcoin-ETF-এর প্রত্যাহার করা কোন কিছুই একে প্রভাবিত করতে পারে নি। BTC/USD ক্রিপ্টোজুড়ি 3,570-3,800$-এর সংকীর্ণ প্রান্ত থেকে বেরোতে পারে নি। এটিকে উপরে বা নীচের দিকে ভেঙ্গে ফেলার প্রচেষ্টাও বিফল হয়েছিল। প্রথম ক্ষেত্রে, এই ক্রিপ্টোজুড়ি 3.870-এর উচ্চতায় পৌঁছাতে সমর্থ হয়েছিল, দ্বিতীয় ক্ষেত্রে, 3.460-এর দিগন্তে পৌঁছিয়েছিল, কিন্তু পরিশেষে 3,580-3,675$ অঞ্চলের সংকীর্ণ প্রান্তের কেন্দ্রে ফিরে এসেছিল।   

 

-আসন্ন সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, অনেক বিশ্লেষকদের মতামতের সাথে সাথে প্রাযুক্তিক ও রৈখিক বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে কৃত পূর্বাভাসগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে আমরা নিম্মলিখিত বক্তব্য রাখছিঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। অদূর ভবিষ্যতে ডলার জুড়িগুলির দর নিশ্চিতভাবে চীনের সাথে বাণিজ্য আলোচনার খবরের দ্বারা প্রভাবিত হবে, যা ওয়াশিংটনে 30-31শে জানুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হবে, এবং যেটির সফল হবার অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও, ইউএস শ্রমবাজারের পরিসংখ্যান 1লা ফেব্রুয়ারীতে প্রকাশিত হবে। তবে, ট্রাম্প-এর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ল্যারি কাডলো ইতিমধ্যে এই তথ্য ফাঁস করে দিয়েছেন যে
    NFP-এর মত সূচকের দারুণ বৃদ্ধি হবে, যেহেতু বেকারি সুযোগসুবিধার আবেদনপত্র খুব কম সংখ্যায় জমা পড়েছে।
    এছাড়াও, বৃহস্পতিবার, 31শে জানুয়ারীতে ইউরোজোনের জিডিপি ডেটার প্রকাশিত হবে, যা সম্ভবত হতাশজনক হতে যাচ্ছে। 
    এইসব ইউএস মুদ্রাকে শক্তিশালী করতে পারে, যেই বিষয়ে 60% বিশেষজ্ঞরা সহমত হয়েছেন এই আশায় যে EUR/USD মুদ্রাজুড়ির পতন হবে, প্রথমে 1.1300-এর মাঝারি-মেয়াদের নীচের সীমায়, আর তারপরে আরো নীচে গিয়ে 1.1270 এবং 1.1215-এর সহায়ক স্তরে।
    অপরপক্ষে, যেমন ইতিমধ্যে বলা হয়েছে, বাজারে এই আশা জোরদার হয়েছে যে ইউএস আর্থিক নীতির কড়াকড়ি ধীরে ধীরে আল্গা হয়ে যাবে। এই কারণে 30শে জানুয়ারী, সুদের হারের (এইবারে এটির 2.5%-এ থাকারই সম্ভাবনা রয়েছে) বিষয়ে ফেড-এর সিদ্ধান্তের উপরে বেশী মনোযোগ না দিয়ে বরং 2019 সালের পরিকল্পনার বিষয়ে ফেড কর্তৃপক্ষের মন্তব্যের উপরেই নজর রাখা উচিত হবে। এবং যদি আসন্ন সুদের হারের বৃদ্ধির বিষয়ে তথ্য বিনিয়োগকারীদের হতাশ করে, আমরা ডলারের পতন আশা করতে পারি, যা এক দীর্ঘকালীন প্রবণতায় দাড়িয়ে যেতে পারে। এই ক্ষেত্রে, 40% বিশ্লেষকদের মতে, অদূর ভবিষ্যতে EUR/USD মুদ্রাজুড়ি 1.1500-এর চ্যানেলের উর্ধ্বতর সীমা ভেঙ্গে ফেলতে পারে এবং 1.1580-এর স্তরে পৌঁছাতে পারে।
    এবং নিশ্চই, আমাদের ব্রেক্সিটের উপরে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ভোটিংয়ের কথা ভুলে যাওয়া উচিত হবে না।  
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। তাই, মঙ্গলবার, 29শে জানুয়ারীতে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে-র ব্রিটিশ পার্লামান্টে ইইউ ত্যাগ করার বিকল্প পরিকল্পনা ঘোষণা করা উচিত হবে। এই পরিকল্পনার কিছুটা ইতিমধ্যেই পূর্বাভাসের প্রথম অংশে উল্লেখ করা হয়েছে। বিরোধী লেবার পক্ষ কি করা উচিৎ হবে এখনো ঠিক করতে পারছে না, এবং এর ফলে পুর্ননির্বাচনের দ্বিতীয় গণভোটের সম্ভাবনাও হ্রাস পাচ্ছে। এবং দি টেলিগ্রাফ পাঁচটি সংশোধনের আলোচনা করছে যা ভোটে দেওয়া হবে।
    আমরা কেবলমাত্র মঙ্গলবারে জানতে পারব পার্লামেন্টের সদস্যরা কিভাবে ভোট দিয়েছেন। আমাদের বিশেষজ্ঞদের কথা মত, তাদের ভোটগুলি এইভাবে বন্টন হতে পারেঃ 50% বিশেষজ্ঞ আশা করছেন যে এই মুদ্রাজুড়ির পতন হবে, 40% এর বৃদ্ধি দেখছেন, এবং বাকি 10% অনিশ্চিত রয়েছেন। সহায়কের স্তরগুলি হবে 1.3070, 1.2900, 1.2820, 1.2700 এবং 1.26 60। প্রতিরোধক স্তর হবে 1.3250, 1.3300, 1.3360 এবং 1.3555;
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের মত না হয়ে 28শে জানুয়ারীতে ব্যাংক অফ জাপানের আর্থিক নীতি কমিটির বৈঠক থেকে কোন আশ্চর্যজনক কিছু আশা করা উচিৎ হবে না। এই মুদ্রাজুড়ির দর আমেরিকার থেকে খবরের দ্বারা শক্তিশালীভাবে প্রভাবিত হতে পারে। এইটি এবং ডলারের উপর সুদের হারের বৃদ্ধির বিষয়ে খবরে, এবং 30-31শে জানুয়ারীর ইউএস-চীনের আলোচনার সাফল্য বা ব্যর্থতা এইসব খবর। যদি উভয়পক্ষ এক সমঝোতায় পৌঁছায়, এবং তার সম্ভাবনা খুবই রয়েছে, যেহেতু ট্রাম্পের খুবই প্রয়োজন, আমেরিকান শেয়ারবাজার উপরে উঠবে। এই ক্ষেত্রে, 1 ডলারের দর বৃদ্ধি পেয়ে 110 ইয়েন হতে পারে। 70% বিশ্লেষক, D1-এর রৈখিক বিশ্লেষণের সহায়তায় 2017–18 সালের 111.55-এর অঞ্চলে মূল লক্ষ্যমাত্রা হিসাবে এক শক্তিশালী স্তরের ইঙ্গিত দিচ্ছে। 30% বিশেষজ্ঞ এবং D1-এ 15% দোদুল্যমান সূচক এক বিকল্প দৃষ্টিভঙ্গি প্রদান করছে যা ইঙ্গিত দিচ্ছে যে এই মুদ্রাজুড়ির অধিক ক্রয় হয়েছে। নিম্নমুখী গমনাগমনের ক্ষেত্রে, সহায়ক স্তর 109.15,108.70 এবং 107.75-এ অবস্থান করবে।

 

  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। খবরে মন্দ প্রতিক্রিয়া, যা এক বছর আগে এই ক্রিপ্টোমুদ্রাগুলির দশ বা এমনকি একশো শতাংশ দরের ওঠানামার কারণ হত, এই পরামর্শ দিচ্ছে যে ডিজিটাল মুদ্রাবাজার ক্রমবর্ধমানরূপে ফরেক্সের অনুরূপ হতে শুরু করছে। এটি যে কেবলমাত্র “জলের পাত্র” দ্বারা সুগম হয়েছে তাই নয়, যা এমনকি গোঁড়া ক্রিপ্টো অনুরাগীর উত্তাপকেও ঠাণ্ডা করেছে তাই নয়, কিন্তু নিয়ন্ত্রকদের দ্বারাও ক্রমবর্ধমান মনোযোগ পেয়েছে। এই সময়ে, ব্যাংক অফ্ ইংল্যাণ্ড বিনিয়োগকারীদের সুরক্ষার প্রতি নজর দিয়েছে, ক্রিপ্টোমুদ্রাগুলিকে তিনটি ভাগে বিভক্ত করে এবং বর্তমান অধিনিয়মের শাসনাধীন করে এগুলির শ্রেণীবিভাগ করার জন্য একত্রিত হয়েছে।
    আমরা মনে করি য়ে অদূর ভবিষ্যতে আমাদের বৃহৎ সংস্থাগত বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি আশা করা উচিৎ হবে না, যাদের আশায় তাদের ছোট সহযোগীরা অপেক্ষা করে আছে। “তিমি”-দের দ্রুত লাভ করার কোন লক্ষ্য নেই, এবং তারা বাজারের পরিস্থিতির স্পষ্টরূপে পরিস্কার হবার আগে অপেক্ষা করবে, এবং এরকম ফাটকাবাজার থেকে ঝুঁকিগুলি সবথেকে খারাপ হতে পারে। এবং এরকম কোন প্রত্যাশা অনেক বছর ধরে থাকতে পারে এবং এমনকি দশক ধরেও।
    ইতিমধ্যে, যা ইতিমধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে, বৃহৎ মুদ্রাগুলির একটি পার্শ্ব প্রবণতা রয়েছে। তবে, মন্দাবাজারের নাছোড়বান্দা চাপের লক্ষ্য না করা অসম্ভব ছিল। উদাহরণস্বরূপ, মূল রেখা, যার আশপাশে BTC/USD ক্রিপ্টোজুড়ি গত দু সপ্তাহে ওঠানামা করেছে, তার 20 পয়েন্ট পতন হয়েছে, ripple (XRP/USD)-এর প্রায় 5% পতন হয়েছে, এবং Ethereum (ETH/USD)-এর 8% পতন হয়েছে। অবশ্যই, এটি ক্রিপ্টোজুড়ির পক্ষে একটি তুচ্ছ ব্যাপার, কিন্তু, সম্ভবত, এটি হল একটি আসন্ন বিরাট সাফল্যের অভিমুখে একটি নির্দেশক।
    বিশেষজ্ঞদের অপ্রতিরোধ্য সংখ্যাগরিষ্ঠ (70%) মনে করেন যে bitcoin পরিশেষে এরকম চাপের মুখে হার স্বীকার করবে এবং প্রথমে 2018 সালের নিম্ন অবস্থান 3,200-3,250$-এর অঞ্চলে যাবে, এবং তারপরে  2,400$-এর সহায়ক স্তরে পৌঁছাবে।
    10% বিশেষজ্ঞরা এই পার্শ্ববর্তী প্রবণতা জারি রাখার পক্ষে ভোট দিয়েছেন, এবং 20% বিশেষজ্ঞরা এই মুদ্রাজুড়ির বৃদ্ধি এবং 3,850-4,215$-এর অঞ্চলে ফিরে যাবার আশা করছেন।  

 

-রোমান বাটকো, NordFX

 

-বিজ্ঞপ্তিঃ এই লেখনীগুলিকে আর্থিক বাজারে লেনদেন করার জন্য বিনিয়োগ বা নির্দেশিকার জন্য সুপারিশ হিসাবে গণ্য করা উচিত হবে নাঃ এগুলি শুধুমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং ঝুঁকিপূ্র্ণ এবং এতে গচ্ছিত অর্থের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।  


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)