অক্টোবর 14, 2018

-প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাবলীর বিষয়ে পর্যালোচনা:

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি।  ইউএস বাজারে এক ক্রমাগত সংশোধন দেখা যাচ্ছে, যার ফলে ডলার দুর্বল হয়ে পড়ছে। বৃহস্পতিবার, 11ই অক্টোবরে ইউএস শেয়ারবাজারের সূচক S&P500-এর আরো 2% খুঁইয়ে ফেলার কারণে, বিনিয়োগকারীদের ডলারের শেয়ার ছেড়ে দিতে হয়েছিল। G20 শীর্ষ শিখর বৈঠক চলাকালীন ডোনাল্ড ট্রাম্পের চীনের রাষ্ট্রপতি জিং জিংপিং-এর সাথে কথা বলতে চাওয়ার খবরে এই প্রক্রিয়া গতি পেয়েছিল। এটিকে ইউএস-এর সম্ভাব্য দুর্বল অবস্থান হিসাবে গণ্য করা হয়েছিল। এর ফলে, দক্ষিণদিশা থেকে উত্তরদিশায় উল্লম্ফনের পরে এই মুদ্রাজুড়ি মাঝারি-মেয়াদের 1.1525-1.1830-এর পার্শ্ববর্তী সংকীর্ণপ্রান্তের সীমানায় ফিরে এসেছিল যা মে মাসে শুরু হয়েছিল, এবং পাঁচ দিনের লেনদেনের সপ্তাহটিতে 1.1560-এ শেষ করেছিল; 
  • GBP/USD মুদ্রাজুড়ি। ডলারের দুর্বল হওয়া এই মুদ্রাজুড়িকে সাহায্য না করে বরং প্রভাবিত করেছিল। শুক্রবার, 12ই অক্টোবরে, এই মুদ্রাজুড়ি 1.3255-এর উচ্চতায় পৌঁছিয়েছিল, এবং দুই সপ্তাহের সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ দরের পার্থক্য  335 পয়েন্ট অতিক্রম করেছিল। সত্যি কথা বলতে গেলে, সপ্তাহের একদম শেষে, একটি চিত্তাকর্ষক বৃদ্ধির পরে আবার ঘুরে যাওয়া শুরু হয়েছিল, এবং এই মুদ্রাজুড়ি লেনদেনের সপ্তাহের শেষে 1.3150-এ স্থিত হয়েছিল;
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। জাপানী ইয়েন মধ্য-সেপ্টেম্বরের দরে ফিরে এসেছিল আর এইভাবে ডলারের তুলনায় শক্তিশালী হয়ে উঠেছিল। এই প্রবণতা বৃহত্ অংশগ্রহণকারীদের বিশ্ববাজারের ক্রমবর্দ্ধমান অস্থিরতায় নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া এবং এক শান্ত জাপানী মুদ্রার ছত্রছায়ায় তাদের মূলধনের কিছু অংশ লুকিয়ে রাখার ইচ্ছার দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিল। এর ফলে, এই মুদ্রাজুড়ি লেনদেনের সপ্তাহের শেষে 112.20-এর অঞ্চলে এসে পৌঁছিয়েছিল;
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। কেউ হয়তো বলতে পারেন যে ডিজিটাল ক্ষেত্রে কোন পরিবর্তন হয় নি, কারণ BTC/USD ক্রিপ্টোজুড়ি লাভজনক বিক্রির স্তরের নীচে যায় নি। যদিও এর ফলে বিনিয়োগকারীরা ঘাবড়ে গিয়েছিলেন, মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যে bitcoin-এর মূল্য 420$ পড়ে গিয়ে গত তিন-সপ্তাহের সর্বনিম্ন স্তর 6.215$-এ পৌঁছিয়েছিল। ইউএস শেয়ারবাজারে ধস এবং সাইবার-সুরক্ষা সমস্যা এবং ডিজিটাল মুদ্রা যে বিশ্বব্যাপী আর্থিক ব্যবস্থার দুর্বলতার এক নতুন কারণ হতে পারে সেবিষয়ে আইএমএফ (IMF) রিপোর্টের কারণে ক্রিপ্টোমুদ্রার মানসম্মত দরের পতন হয়েছিল। ETF শুরু করার অনুরোধে আমেরিকান নিয়ন্ত্রক (SEC)-এর কোন সিদ্ধান্ত না দেবার কারণেও বাজারে কোন আশা জাগেনি।
    বাকি শীর্ষস্থানীয় ক্রিপ্টোজুড়িগুলিও bitcoin-কে অনুসরণ করেছিল। ক্রিপ্টোবাজারের সর্বমোট মূলধনের পরিমাণের 15$ বিলিয়ন ডলারের পতন হয়েছিল। যদিও bitcoin এবং অন্যান্য altcoins যেমন litecoin (LTH/USD), ripple (XRP/USD) ও ethereum (ETH/USD) সপ্তাহের শেষে কিছু ক্ষতি পুনরুদ্ধার করতে পেরেছিল, মন্দাবাজার জিতে গিয়েছিল।

 

-আসন্ন সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, অনেক সংখ্যক বিশ্লেষকদের মতামতের সাথে সাথে প্রাযুক্তিক ও রৈখিক বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে কৃত পূর্বাভাসগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে আমরা নিম্মলিখিত বক্তব্য রাখছিঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। পরবর্তী সপ্তাহ প্রকৃতপক্ষে প্রচুর ঘটনার ঘনঘটায় ছেয়ে থাকবে যা ডলারজুড়িতে প্রবণতার রচনাকে হয়তো প্রভাবিত করতে পারে। এইগুলি হল ইউএসএ-র থেকে প্রাপ্ত বৃহত্ অর্থনীতির পরিসংখ্যান এবং ইউরো অঞ্চল, গ্রেট ব্রিটেন এবং চীনের মুদ্রাস্ফীতির ডেটা উভয়ই। বর্তমান আর্থিক সংবেদনশীলতার সূচক জার্মানী এবং ইইউ দ্বারা উপস্থাপিত হবে, এবং ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ কমিটির বৈঠকের মিনিটস্ বুধবারে প্রকাশিত হবে। চীনের জিডিপি-র ডেটা এবং, অতি অবশ্যই ইইউ-র ব্রেক্সিট শীর্ষ বৈঠকের ফলাফল বাজারে এক গুরুতর প্রভাব ফেলবে।
    এইসব ঘটনাবলীতে অনেকগুলি পরিস্থিতি জড়িত রয়েছে। এই রকম পরিস্থিতিতে, দোদুল্যমান সূচক এবং প্রবণতা সূচক সম্পূর্ণরূপে বিভ্রান্তির মধ্যে রয়েছে। কিন্তু বেশীরভাগ বিশেষজ্ঞ (60%) বিশ্বাস করেন যে 1.1525-1.1830-এর সংকীর্ণপ্রান্তের সীমায় ফিরে এসে কিছু সময়ের জন্য প্রথমে কেন্দ্রের দিকে যাবে, এবং তারপরে এই চ্যানেলের উপরের সীমায় যাবে। এই লক্ষ্যমাত্রা হল 1.1650 এবং 1.1735।
    এক বিকল্প পরিস্থিতি এই কারণে সমর্থিত হয়েছে যে উত্থানের অবস্থান আপডেট করার পরে, 10-বছরের ইউএস বণ্ড থেকে আয়ের পতন হবে, যা ডলারের এক সম্ভাব্য শক্তিশালী হবার ইঙ্গিত দিয়েছে। সহায়ক স্তর হল 1.1430 এবং 1.1300;
  • GBP/USD মুদ্রাজুড়ি। আগের ক্ষেত্রে যেমন হয়েছিল, এখানে আবারও 60% বিশেষজ্ঞ এই মুদ্রাজুড়ির উর্ধ্বমুখী প্রবণতার পক্ষে সমর্থন জানিয়েছেন। তাদের মতে, এই মুদ্রাজুড়ির 1.3225-1.3245-এর অঞ্চলে ওঠা উচিত হবে। পরবর্তী লক্ষ্যমাত্রা হল 1.3300-এর উচ্চতা। বিশেষজ্ঞদের অনুসারে, পাউণ্ডের শক্তিশালী হবার এখনো অনেক সুযোগ রয়েছে, এবং সর্বপ্রথমে, ব্রেক্সিটের বিষয়ে ইতিবাচক খবরের জন্য অপেক্ষা করছে।
    80% প্রবণতা সূচক এবং D1-তে 70% দোদুল্যমান সূচক এই মুদ্রাজুড়ির বৃদ্ধির পক্ষে ভোট দিয়েছেন এবং এখানে এদের মধ্যে অনেকজন ইঙ্গিত দিচ্ছে যে এই মুদ্রাজুড়ির অধিক বিক্রয় হয়েছে।
    এটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে মাঝারি-মেয়াদে বেশীরভাগই মন্দাবাজারের প্রতি ঝুঁকেছেন এবং এখানে ইতিমধ্যেই 55% বিশেষজ্ঞ, D1-তে রৈখিক বিশ্লেষণের সহায়তায়, আশা করছেন যে এই মুদ্রাজুড়ির 1.2920-এর অঞ্চলে অক্টোবরের প্রথম দিকের নিম্নমুখী অবস্থানে পতন ঘটবে;
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। এই মুদ্রাজুড়ির জন্য মন্দাবাজার সামান্য মাত্রায় (45%) এগিয়ে রয়েছে। তাদের মতে, ডলারের পতন হয়েই চলবে, এবং দর 111.00-এর স্তরে এগোবে। এই পরিস্থিতিকে 70% প্রবণতা সূচক এবং দোদুল্যমান সূচক সমর্থন করছে। তবে, D1-তে ইতিমধ্যে 20% দোদুল্যমান সূচক ইঙ্গিত দিচ্ছে যে এই মুদ্রাজুড়ির অধিক বিক্রয় হয়েছে।
    35% বিশ্লেষক তির্যক গমনের প্রতি সমর্থন জানাচ্ছেন, এবং বাকি 20% বিশ্লেষক 113.15, 114.00 এবং 114.55 লক্ষ্যমাত্রা সহ এক উর্ধ্বমুখী প্রবণতার পক্ষে রয়েছেন।
    রৈখিক বিশ্লেষণের কথা বলতে গেলে, এর পঠন অনুসারে, এই মুদ্রাজুড়ি প্রথমে 113.15-এর প্রতিরোধক স্তরে পৌঁছাবে এবং তারপরে আচমকা 111.70-এর সহায়ক স্তরে নেমে যাবে, এবং তারপরে আরো নেমে গিয়ে 111.00-এর অঞ্চলে স্থানীয় তলদেশে পৌছানোর চেষ্টা করবে; 
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। বৃহস্পতিবার, 11ই অক্টোবরের পতনে, bitcoin উর্ধ্বমুখী প্রবণতার সহায়ক রেখা অতিক্রম করেছিল, যা গত 8ই সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছিল। যদি এই পতন চলতে থাকে, আমরা দেখতে পাব যে BTC/USD মুদ্রাজুড়ি 6,100$-এর অঞ্চলে রয়েছে। পরবর্তী সহায়ক স্তর হল 5,870$। তবে, বিশেষজ্ঞদের মতে, তীব্র নেতিবাচক সংবাদের অভাবে, bitcoin-এর 6,325-6,835$-এর অঞ্চলে ফিরে আসার সবথেকে বেশী সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যান্য অনেক কিছুর মধ্যে এই পূর্বাভাস Chainalysis এর অধ্যয়নের ফলাফলের ভিত্তিতে করা হয়েছে, যা দেখিয়েছে যে সংশোধনের সময় বৃহত্ লেনদেনকারীগণ প্রায়শই মুদ্রা ক্রয় করে দর স্থিতিশীল রাখার চেষ্টা করে থাকেন। এই মুহূর্তে তাই দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। 

 

-রোমান বাটকো, NordFX


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)