অগাস্ট 8, 2020

প্রথমে গত সপ্তাহের ঘটনাবলির পর্যালোচনা :

  • ইউরো/মার্কিন ডলার। টানা ছয় সপ্তাহ ডলারের পতন ঘটেছে। মে 2018-এর পর ইউএসডি সূচক (ডিএক্সওয়াই) সর্বনিম্ন মূল্যে পৌঁছল। গত পাঁচ মাসে এটি প্রায় 10 শতাংশ হারিয়েছে। এবং এখন, মনে হচ্ছে পতন বন্ধ হয়েছে : ইউরো/মার্কিন ডলার জোড়া টানা দুসপ্তাহ 1.1700-1.1910-এর মধ্যে সাইড করিডোরের সঙ্গে নড়াচড়া করছে।
    5-6 আগস্ট এর ঊর্ধ্বসীমা অতিক্রমের চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে, এবং জোড়াটি পাঁচ-দিনের পর্ব সমাপ্ত করেছে 1.1785-এ শুক্রবার 7 আগস্টে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট, যিনি সোশাল নেটওয়ার্কে চীনকে আক্রমণ করেছেন, ডলারের শক্তিতে যোগ করেছেন। বিয়ার্স অপেক্ষা করছে ওয়াশিংটন ও চীনের মাঝে বাণিজ্য যুদ্ধের পূর্ণ আরম্ভের যেমন স্বর্গ থেকে মান্না, এবং আশা করছে যে ডোনাল্ড ট্রাম্প এই একবারের আক্রমণে নিজেকে বেঁধে রাখবেন না।
    কংগ্রেস, যে এখনও মার্কিন অর্থনীতির জন্য নতুন স্টিমুলাস পন্থার বিষয়ে কোনো চুক্তিতে পৌঁছতে সক্ষম হয়নি, ডলারকে শক্তিশালী করতে সামান্য সহায়তা করেছে। এর ফলে, স্টক ইন্ডাইসের বিকাশ বেড়ছে, এবং বিনিয়োগকারীদের মতামত ফের মার্কিন কারেন্সির দিকে ঘুরেছে।
    গত সপ্তাহে প্রকাশিত মার্কিন ম্যাক্রোইকোনমিক ইন্ডিকেটর্সও ইতিবাচক ডায়নামিক্সের আবছা হয়ে যাওয়া সম্পর্কে আলোচনা করেছে। প্রাইভেট সেক্টর এমপ্লয়মেন্ট রিপোর্ট (এডিপি)-কে দেখাচ্ছে বরং দুর্বল এবং ক্রেডিট কার্ড লেনদেন ও মোবাইল ট্রাফিকে ক্রিয়াকলাপ ভিত্তিক ইন্ডাইস ছিল কোভিড-19 সংকটের আগের তুলনায় 10-30 শতাংশ কম।
    এনএফপি ইন্ডিকেটর দেখাচ্ছে সবুজে ঘুরেছে, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে, 1.763 মিলিয়নের অঙ্ক নতুনভাবে সৃষ্টি হয়নি, বরং এগুলি পুরনো কাজ, যেখানে মানুষদের জোর করে দীর্ঘমেয়াদি ছুটিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তাঁরাই ফিরেছেন। মনে রাখতে হবে যে মে ও জুনে এই সংখ্যা ছিল যথাক্রমে 2.7 মিলিয়ন ও 4.8 মিলিয়ন। সুতরাং জুলাইয়ের ফলাফল হল এই পর্বের সবচেয়ে খারাপ।
  • জিবিপি/মার্কিন ডলার। মার্চ থেকে, সংকটের গোটা পর্ব, জিবিপি/মার্কিন ডলার জোড়ার সঙ্গে ইউরো/মার্কিন ডলারের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক দেখা গেছে, বাস্তবে এর সব ওঠানামা পুনরাবৃত্তি করেছে। ব্রিটিশ পাউন্ড এর মার্চ উচ্চতার কাছে গেছে বৃহস্পতিবার, 6 আগস্ট, পৌঁছেছিল 1.3185 উচ্চতায়। কিছু বিশ্লেষকের বিশ্বাস যে এটা ঘটেছে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মিটিঙের পর। যদিও, এতে কেউ অসম্মতও হতে পারে। বরং, অপবাদ হল ডলারের সাধারণ পতন, এই দিনগুলিতে ডিএক্সওয়াই সূচক পড়েছে বেশ খানিকটা।
    প্রত্যাশামতোই ব্রিটিশ রেগুলেটরের মিটিং কোনো বিস্ময়ের সৃষ্টি করেনি। ব্যাংক অব ইংল্যান্ড স্থির করেছে মূল সুদের হার অপরিবর্তিত থাকবে 0.1 শতাংশে, এবং কিউই কর্মসূচির লক্ষ্যের পরিমাণ 745 পাউন্ড। একই সময়ে, ব্যাংকের ম্যানেজমেন্টের বিশ্বাস যে অতিমারির অভিঘাত কাটিয়ে মার্কিন অর্থনীতি উঠে দাঁড়াবে 2021 শেষ হওয়ার আগেই। পাশাপাশি, রেগুলেটরের বিশ্বাস যে এর আর্থিক নীতি বদলানোর কোনো জরুরি প্রয়োজন নেই, এবং এমনকি আরও কথা হল, নেতিবাচক সুদের হার নিয়ে আলোচনা করাও বুদ্ধিমানের পরিচয় নয়। এরকম একটি পদক্ষেপ ব্যাংকের জন্য জটিলতার সৃষ্টি করবে, যা ইতিমধ্যেই গুরুতর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে কোভিড-19 অতিমারির জন্য।
    এর ফলে, ইউরোপিয়ান একটির মতো ব্রিটিশ কারেন্সি ডলারের বিপরীতে গেছে সাইডওয়েতে, ধরে রেখেছে ট্রেডিং রেঞ্জ 1.2980-1.3185। চূড়ান্ত অবস্থান ছিল 1.3055।
  • ইউএসডি/জেপিওয়াই। যুক্তরাজ্য, ইউরোপ ও কানাডার কয়েকটি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কনসোর্টিয়ামের সদস্য হল ব্যাংক অব জাপান, যারা দল বেঁধেছে একটি ডিজিটাল কারেন্সি চালু করলে তার সম্ভাবনা, চ্যালেঞ্জ খতিয়ে দেখার জন্য। এখন জাপান ডিজিটাল ইয়েন চালু করার জন্য সক্রিয়ভাবে কাজ করছে, যার জন্য একটি বিশেষ নিরীক্ষণ কমিটি তৈরি হয়েছে। হয়তো এই ঘটনা বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণ করবে, কিন্তু এখন পর্যন্ত ফিয়াট ইয়েন ফের পড়েছে বিশাল আর্থিক ‘হাঙর’-এর দৃষ্টিতে : গত পাঁচ দিনে, এর ওঠানামার পরিধি 115 পয়েন্ট অতিক্রম করেনি, এবং জাপানি কারেন্সি ট্রেডিং সেশন শেষ করেছে গত সপ্তাহের মতো প্রায় একই স্থানে, যেখানে তারা শুরু করেছিল – 105.90 থেকে।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে সকলেই মতামত পোষণ করতে পারে, এমনকি একটি শিশু, মিলিয়নিয়ার, যা গত সপ্তাহে নিশ্চিত হয়েছিল। যদিও, এটা সৎভাবে সর্বদা ঘটে না। সেজন্য, কয়েকদিন আগে, পুলিশ আটকে রেখেছিল 17 বর্ষীয় গ্রাহাম ক্লার্ককে, যার বিরুদ্ধে অভিযোগ হল সেলিব্রিটিদের টুইটার অ্যাকাউন্টের ওপর হ্যাকার আক্রমণ আয়োজন করা। অন্যদের মধ্যে, তার লক্ষ্য ছিল এলোন মাস্ক, বারাক ওবামা ও জো বিডেন, যাঁদের তরফে সে বিটকয়েন প্রতারণা কার্যকলাপের আয়োজন করেছিল। সেজন্য, এই টিনএজার হয়ে উঠেছিল 300 বিটিসি-র মালিক, যার আজকের বিনিময় মূল্য হল প্রায় 3.5 মিলিয়ন ডলার!
    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বয়স্ক বাসিন্দাদের জন্য, কর্নারস্টোর অ্যাডভাইজর সম্প্রতি প্রকাশ করেছে একটি সমীক্ষার ফলাফল, যার মতে, ইতিমধ্যে 15 শতাংশ মার্কিন বিটকয়েন বা অন্য কোনো অল্টকয়েনের মালিক, এবং তাঁদের অর্ধাংশ গত ছয় মাসে ক্রিপ্টো বিনিয়োগকারী হয়ে উঠেছেন। গড়ে, নতুন বিনিয়োগকারীরা, যাঁরা ক্রিপ্টো বাজারে বিনিয়োগ করেছেন 67 বিলিয়ন ডলারের বেশি, প্রত্যেকে খরচ করেছেন ৪০০০ ডলার। এঁদের অধিকাংশই উচ্চ-আয়ের মানুষ (বছরে প্রায় 130000 ডলার) সঙ্গে কলেজ ডিগ্রি। এবং লক্ষ্য করার বিষয় হল প্রায় একশো শতাংশ বিনিয়োগকারীই হলেন পুরুষ।
    এবং এখন সেই খবর যা ক্রিপ্টো সম্প্রদায়ের অনেক সদস্যকেই ভীত করেছে। রবিবার, 2 আগস্ট 12080 ডলারের সুন্দর উচ্চতা থেকে বিটকয়েনের মূল্য, অপ্রত্যাশিতভাবে, কয়েক মিনিটের ভেতরে নেমে আসে 10500 ডলারে, যা বিনিয়োগকারীদের ভীতির কারণ। যদিও, তাঁদের আনন্দের বিষয় হল, আর কোনো পতন হয়নি, এবং কোট দ্রুত ফিরে গেছে 11000 ডলারের সীমায়। রুপার্ট ডগলাস, কোইনে-র সংস্থামূলক বিক্রির প্রধান, বলেছেন, উচ্চ মূল্যে দীর্ঘ অবস্থানের লিকুইডেশন দ্বারা এই পরিস্থিতি হয়েছিল। এরপর, সেই দিন, 147 মিলিয়ন ডলারের অবস্থান লিকুইডেট হয়েছিল বিটমেক্স ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জে। সামগ্রিকভাবে, এই ‘ধূসর রবিবার’ চলাকালীন ক্রিপ্টো কারেন্সি মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন প্রায় 30 বিলিয়ন ডলার হারিয়েছে, 361 বিলিয়ন থেকে নেমে গেছে 331 বিলিয়ন ডলারে।
    11,000 ডলারের স্তর হয়ে উঠেছে বিটিসি মার্কিন ডলারের জন্য একটি নতুন শক্তিশালী সহায়তা, যেখান থেকে এই জোড়াটি সক্ষম হয়েছে ফের আরোহণে 11,500-11,850 ডলার অঞ্চলে, শুক্রবার 7 আগস্টের মধ্যে। মোট ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশন প্রায় পুনরুদ্ধার হয়েছে, পৌঁছেছে 357  বিলিয়ন ডলারে। ক্রিপ্টো ফিয়ার অ্যান্ড গ্রিড ইনডেক্স হয় 77-এ, যা প্রায় সাত দিন আগের মতো একই।
    ইটিএইচ/মার্কিন জোড়া ফিরেছে 400 ডলার অঞ্চলে। এটা মনে রাখা উচিত যে ইথেরিয়াম বাণিজ্য পরিমাণে বৃদ্ধির হার নজরে রয়েছে এবং ফিউচার মার্কেট বিটকয়েনের এই একই হারের চেয়ে দ্রুততর বৃদ্ধি হচ্ছে। যদি ইটিএইচ ও বিটিসি-র বাণিজ্য পরিমাণ অনুপাত ছিল সেপ্টেম্বর 2019-এ মাত্র 16 শতাংশ, তাহলে সেই সংখ্যা 50 শতাংশ ঊর্ধ্বে উঠেছে। ফিউচার মার্কেটে, এই একই সময়ে এটি উঠেছে 8 শতাংশ থেকে 29 শতাংশে। সংখ্যার ভিত্তি হল ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ বাইনান্স, কয়েনবেস, বিটফিনেক্স, ক্র্যাকেন ও বিটস্ট্যাম্প। কয়েনগেকো-র মতে, ইথেরিয়ামের দৈনিক লেনদেনের বাণিজ্য পরিমাণ বর্তমানে 15.1 মিলিয়ন অতিক্রম করেছে, বিটকয়েনের এই একই ইন্ডিকেটরের পেছনে মাত্র 25 শতাংশে। যদিও ইটিএইচ-এর ক্যাপিটালাইজেশন এখনও তাৎপর্যপূর্ণ – 5.25 গুণ – বিটিসি-র চেয়ে কম।

 

আগামী সপ্তাহের অনুমানের ক্ষেত্রে, বেশকিছু সংখ্যক বিশেষজ্ঞের মতামতের সংক্ষেপের পাশাপাশি টেকনিক্যাল ও গ্রাফিক্যাল বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে আমরা বলতে পারি :

  • ইউরো/মার্কিন ডলার। ফেড ব্যালান্স শিট বেশ কয়েকমাস ধরে বৃদ্ধি পায়নি, এবং ট্রেজারি তার ভল্টে রেখে দিয়েছে 1.7 ট্রিলিয়ন ডলারেরও বেশি। এর ফলে, আমরা দেখছি মার্কিন অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে শ্লথতা, যা সরকার এবং ফেডকে বাধ্য করছে এটা স্টিমুলেট করতে নতুন পন্থা গ্রহণের। অন্যথা, একটি ভি-আকৃতির রিবাউন্ডের পরিবর্তে, একটি ডব্লিউ-আকৃতির মন্দা হবে বাস্তবতা, এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প শেষপর্যন্ত হারাবেন ইতিমধ্যেই দুর্বল  পুনর্নির্বাচনের সুযোগ।
    50 শতাংশ বিশেষজ্ঞের বিশ্বাস যে লিকুইডিটি এবং ফিসকাল স্টিমুলাসের অন্যান্য পন্থা দিয়ে অর্থনীতি পাম্পিঙের পরের ধাপ বেশিদিন টিকবে না। সুতরাং, ডলারের পতন জারি থাকবে এবং ইউরো মার্কিন ডলার জোড়া ধারাবাহিকভাবে বৃদ্ধি পাবে। নিকটতম লক্ষ্য হল 1.1840, 1.1900  এবং 1.2000।
    20 শতাংশ বিশ্লেষকের আশা, জোড়াটির পার্শ্বিক প্রবণতা 1.1700-1.1910-এর মধ্যে, এবং বাকি 30 শতাংশের বিশ্বাস যে পরের কয়েক সপ্তাহে এটা ফিরে আসবে 1.1450 এলাকায়।
    বিশেষজ্ঞদের অর্ধাংশ বাদে, গ্রাফিক্যাল অ্যানালিসিস উত্তরের দিকে তাকিয়ে আছে, পাশাপাশি D1-এ 80 শতাংশ অসিলেটর এবং 85 শতাংশ ট্রেন্ড ইন্ডিকেটরও। বাকি 20 শতাংশ অসিলেটর সংকেত দিয়েছেন যে জোড়াটি অতিরিক্ত বিক্রীত।
    আমরা আগামী সপ্তাহে মার্কিন উপভোক্তা বাজারের ডেটার জন্য অপেক্ষা করছি, যা প্রকাশ পাবে বুধবার, 12 আগস্ট এবং শুক্রবার, 14 আগস্ট। এবং যদি উপভোক্তা মূল্য সূচক ভবিষ্যদ্বাণী করে সমতল থাকবে, তাহলে খুচরো বিক্রিতে পতন দেখা যাবে জুলাইয়ের 7.5 শতাংশ থেকে 1.7 শতাংশে। এইসঙ্গে, শুক্রবার, ইউরোজোন জিডিপি-র দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের প্রাথমিক তথ্যও জানা যাবে।

  • জিবিপি/মার্কিন ডলার। দুর্বল ডলার ছাড়াও ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের সুদের হার কর্তনের দাবি প্রত্যাখ্যান এবং সম্পদ ক্রয় কর্মসূচি বৃ্দ্ধি পাউন্ডের সহায়ক হয়েছে। বুধবার, 12 আগস্ট, কিউআইআই-এর জন্য মার্কিন জিডিপি ডেটা প্রকাশ পাবে, যার অনুমান 20.2 শতাংশ। তুলনায় ইউরোজোন অর্থনীতির এই একই সময়ে পতন ঘটেছে 12 শতাংশ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের 9.5 শতাংশ। এবং বিনিয়োগকারীদের অনুমান যে এরকম জটিল পরিস্থিতি রেগুলেটরকে বাধ্য করতে পারে অতিরিক্ত স্টিমুলাস পন্থা গ্রহণের। যদিও, ব্যাংক কর্তৃপক্ষের দৃঢ় অবস্থান অবশ্যই তাদের ভীতি উপশম করবে এবং ব্রিটিশ অর্থনীতিকে শুধু প্রবাহিত হতে সাহায্যই নয়, বরং একে ডলারের বিপরীতে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে।
    এটা ঠিক সেটাই যা এই মুহূর্তে বিশেষজ্ঞদের 60 শতাংশের বিশ্বাস, D1-এ 90 শতাংশ অসিলেটর ও ট্রেন্ড ইন্ডিকেটর সমর্থন করেছেন। রেজিস্ট্যান্স স্তর 1.3185, 1.3200 ও 1.3285। 40 শতাংশ বিশেষজ্ঞ বিপরীত অবস্থান গ্রহণ করেছেন। সাপোর্ট স্তর হল 1.2980, 1.2900, 1.2765 ও 1.2670। H4-এ গ্রাফিক্যাল অ্যানালিসিসের ক্ষেত্রে, এটি এই জোড়ার পার্শ্বিক গতিবিধির ধারাবাহিকতা দেখছে 1.2980-1.3185  পরিধির ভেতরে, এরপর হ্রাস হবে 1.2900-এ।
  • মার্কিন ডলার/ জেপিওয়াই। 50 শতাংশ বিশেষজ্ঞ, H4-এ গ্রাফিক্যাল অ্যানালিসিস দ্বারা সমর্থিত, বিশ্বাস করেন যে আগামী দিনে জোড়াটি ফের একবার সেরা চেষ্টা করবে 106.40 স্তরের স্বাদ পেতে, এবং যদি সফল হয়, আরও 100 পয়েন্ট উঁচুতে উঠবে। মধ্যবর্তী রেজিস্ট্যান্স হল 106.65। 20 শতাংশ বিশ্লেষক সাইডওয়ে গতিবিধির পক্ষে, এবং বাকি 30 শতাংশ অপেক্ষা করছেন জোড়াটির পতন ঘটবে প্রথমে 105.30 সাপোর্টে এবং তারপর 104.75-এ। চরম লক্ষ্য হল জুলাই 31-এর নিম্ন 104.18-এ।
    এখন ইন্ডিকেটরদের সম্পর্কে কিছু কথা। H4-এ ইউরো মার্কিন ডলার এবং জিবিপি মার্কিন ডলারের জন্য তাদের রিডিং দেখিয়েছে সম্পূর্ণ গোলমাল এবং D1-এ প্রাসঙ্গিক অর্ডার, এর বিপরীতটা জাপানি ইয়েনের জন্য সত্য। D1-এ কোনো ডিনমিনেটরের দিকে কোনো ইন্ডিকেটর সংকেত নিয়ে আসা প্রায় অসম্ভব, কিন্তু H4-এ 65 শতাংশ অসিলেটর এবং 80 শতাংশ ট্রেন্ড ইন্ডিকেটরের রং সবুজ। যদিও জোড়াটি অতিরিক্ত বিক্রীত বলে সংকেত দেওয়া অসিলেটরের সংখ্যাও বেশ বড় : 25 শতাংশ। এবং তাদের 10 শতাংশ নিরপেক্ষ অবস্থান গ্রহণ করেছেন, ধূসর রং।
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ব্লুমবার্গ বিশেষজ্ঞরা এবছরের শেষে বিটকয়েনের মূল্য 20000 ডলারের অনুমান নিশ্চিত করেছেন। ‘2014 সালে 60 শতাংশ পতনের পর, পরের তিন বছরে কয়েনের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছ বেশ কয়েক ডজন গুণ। 2018 সালের পতন ছিল মোটামুটি 75 শতাংশ। পূর্বে বিটকয়েন স্পর্শ করেছিল 20000 ডলার এবং এমনকি সংশ্লিষ্ট বাধাও ছুঁয়েছিল, কিন্তু দ্রুত পিছলে যায়। বর্তমান বাস্তবতায়, কয়েনের পূর্ণ সুযোগ আছে শীর্ষ মূল্যে পদচ্ছাপ রাখার,’ বলেছেন ব্লুমবার্গ বিশেষজ্ঞরা।
    ক্রিপ্টোকারেন্সির মূল্য প্রভাবিত হতে পারে ইউএস ফেডারেল রিজার্ভের নিম্ন হারের নীতি সহ ম্যাক্রোইকোনমিক উপাদান দ্বারা। বহু বড় দেশ চেষ্টা করছে যত দ্রুত সম্ভব এই সংকট থেকে বেরোতে, এবং সেজন্য ফিয়াটের ড্রডাউন অনুমোদন করছে। এরকম ওঠানামার প্রেক্ষাপটে, বিটকয়েনের সুযোগ আছে বিনিয়োগকারীদের পছন্দের শীর্ষে থাকার।
    সুপরিচিত বিশ্লেষক টিভি প্রেজেন্টার ম্যাক্স কাইজার, যিনি বিটিসি/মার্কিন ডলারের 28000 ডলারে দ্রুত আরোহণ আশা করেন, তিনিও তাঁর অনুমান নিশ্চিত করেছেন। তাঁর মতে, বিটকয়েন এই সীমার আগে উল্লেখযোগ্য কোনো রেজিস্ট্যান্স স্তর পাবে না। ডিসেম্বর 2017-এর 20000 ডলারের উচ্চতায় এটা আর পৌঁছবে না। ‘তারপর একটা সংক্ষিপ্ত পেছনে আসা, এবং পুনর্নবীকৃত শক্তিতে 100000 ডলারের একটি লাঞ্ছনা,’ অনুমান শেষ করেন কাইজার, যদিও এজন্য তিনি কোনো সময়সীমা বলেননি।
    কিন্তু এটা চিহ্নিত করেছিলেন মর্গ্যান ক্রিক ডিজিটাল-এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা অ্যান্থনি পম্পলিয়ানো, যিনি বলেছেন যে প্রথম ক্রিপ্টোকারেন্সির কোট ডিসেম্বর 2020-তে পৌঁছবে 100000 ডলারে। আরেক জনপ্রিয় ক্রিপ্টো বিশ্লেষক, প্ল্যান বি, দীর্ঘমেয়াদের ইঙ্গিত করেছেন। স্টক-টু-ফ্লো (S2F) মডেলের ভিত্তিতে, তিনি হিসেব করেছেন যে বিটকয়েন ওই নির্ধারিত সীমায় পৌঁছতে পারে একমাত্র পরের বছর, 2021-এ।
    জুবর ক্রিপ্টোকারেন্সি প্ল্যাটফর্মের বিশেষজ্ঞরা স্থির করেছেন যেভাবেই হোক উৎসাহীদের শান্ত করবেন। তাঁরা বিটিসি-র গতিময়তার ওপর একটি স্টাডি চালিয়েছিলেন এবং এই উপসংহারে পৌঁছেছেন যে প্রথাগত সম্পদের তুলনায় বর্ধিত গতিময়তা সত্ত্বেও মূল ক্রিপ্টোকারেন্সি অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বজায় রাখে ‘বাজার সাম্য’। জুবর-এর বিশ্লেষকরা দেখেছেন যে বিটকয়েন মূল্যে তীক্ষ্ণ পরিবর্তনের পর, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই, প্রায় একইরকম শতাংশ বিপরীতে দিকে চলে যায়। এর অর্থ, 12000 ডলারের ওপর উঠলেই, অতি দ্রুত, বিটকয়েনের মূল্য ফিরে আসতে পারে 10000 ডলার সীমায়।

 

নর্ডএফএক্স অ্যানালিটিক্যাল গ্রুপ

 

বিজ্ঞপ্তি : এসব তথ্য আর্থিক বাজারে কাজের জন্য বিনিয়োগ বা পরামর্শ হিসেবে কোনো সুপারিশ নয় : এগুলি একমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং খুবই ঝুঁকিপূর্ণ এবং এর ফলে ডিপোজিটকৃত ফান্ডের পরিপূর্ণ ক্ষতি হতে পারে।


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)