ফেব্রুয়ারী 2, 2019

-প্রথমে গত সপ্তাহের ঘটনাবলী পর্যালোচনা করা যাকঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। সাধারণভাবে, এই সপ্তাহটি কোন আশ্চর্যজনক কিছু নিয়ে আসে নি। কেউই এই FOMC বৈঠকে কোন হারের বৃদ্ধির আশা করেন নি, কিন্তু বিনিয়োগকারীরা 2019 সালের পরিকল্পনার ব্যাপারে ফেড কর্তৃপক্ষের মন্তব্যগুলির বিষয়ে চিন্তাগ্রস্ত ছিলেন। এবং এখানে তাদের “কৌশলী” মন্তব্যের বিষয়ে তাদের পূর্বাভাস পুরোপুরি সঠিক ছিল। কোন সুনির্দিষ্ট প্রতিশ্রুতির পরিবর্তে, নিয়ন্ত্রক এই বিষয়ে বলেছিলেন যে দর বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের সময় বিশ্বজনীন আর্থিক উপকরণকে হিসাবের মধ্যে রাখা উচিত হবে এবং অত্যন্ত ভারসাম্যযুক্ত হওয়া উচিত হবে। এইরূপে, এই অনিশ্চয়তার কারণে ডলারের প্রচণ্ড বিক্রয় হয়েছিল, যার ফলে এই মুদ্রাজুড়ি মাঝারি-মেয়াদের তির্যক চ্যানেল 1.1300-1.1500-এর উপরের সীমায় পৌঁছিয়েছিল। তবে, তারপরে পরিস্থিতি ঠাণ্ডা হয়ে এসেছিল, এবং এই মুদ্রাজুড়ি দক্ষিণদিশার দিকে ঘুরে গিয়েছিল।
    আরেকটি প্রত্যাশিত ঘটনা ছিল শুক্রবার, 1লা ফেব্রুয়ারীতে ইউএস শ্রমবাজারের ডেটার প্রকাশ। পরিসংখ্যান প্রকৃতপক্ষে অত্যন্ত সদর্থক ছিল। এইরূপে, NFP পূর্বেকার মাসের তুলনায় প্রায় 37% বৃদ্ধি পেয়েছিল (222 হাজার থেকে 304 হাজার পর্যন্ত), এবং ISM ব্যবসায়িক কর্মতৎপরতার সূচক বৃদ্ধি পেয়ে 54.3 থেকে 56.6 অবধি হয়েছিল। কিন্তু ট্রাম্পের পরামর্শদাতা ল্যারি কাডলোর বদান্যতায় এটি কোন আশ্চর্যজনক হিসাবে হাজির হয় নি, যিনি আমরা যেমন পূর্বেকার পর্যালোচনায় লিখেছিলাম, আনুষ্ঠানিক প্রকাশনার অনেক আগেই এই খবরটি “ফাঁস” করেছিলেন। এর ফলে, বাজারের প্রতিক্রিয়া 40 পয়েন্টের তুচ্ছ ওঠানামার মধ্যেই সীমিত ছিল, যার পরে এই মুদ্রাজুড়ি সপ্তাহটি 1.1455-এর স্তরে এসে শেষ করেছিল;    
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। ব্রেক্সিটের উপর ইউকে পার্লামেন্টের পরবর্তী বৈঠক ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বিচ্ছেদের প্রক্রিয়ায় কোন স্পষ্টতা যোগ করতে পারে নি। এর ফলে, পাউণ্ড সপ্তাহের প্রথমার্ধে প্রায় 160 পয়েন্ট খুঁইয়ে ফেলেছিল, এবং তারপরে পার্শ্ববর্তী প্রবণতার পথে গমন করে 1.3050-1.3150-এর অঞ্চলে ওঠানামা করেছিল, এবং এই সপ্তাহটি 1.3075-এর স্তরে শেষ করেছিল
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। বাকি অন্যান্য ডলার মুদ্রাজুড়ির মতই, USD/JPY মুদ্রাজুড়ির ইউএস মুদ্রার বিষয়ে ফেড-এর মন্তব্যে সাড়া দিয়ে 108.50-এ পতন হয়েছিল। তবে, এরপরে, ইউএস শ্রমবাজারের সদর্থক সক্রিয়তার সুযোগ নিয়ে, ডলার তার খুঁইয়ে যাওয়া দর পুনরুদ্ধার করতে পেরেছিল, এবং এই মুদ্রাজুড়ি সপ্তাহের শেষে 109.50-এ এসে দাড়িয়েছিল যেখান থেকে এই জুড়ি শুরু করেছিল;
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। পূর্বেকার পূর্বাভাসে এটি দেখা গিয়েছিল যে বৃহৎ মুদ্রাগুলি এক পার্শ্ব প্রবণতার দিকে রয়েছে, যেগুলি ক্রমাগত মন্দাবাজারের চাপ অনুভব করেছিল। 70% বিশেষজ্ঞরা এই পরিস্থিতিকে সমর্থন জুগিয়েছিলেন যাতে দেখানো হয়েছিল যে Bitcoin এই চাপের কাছে নতি স্বীকার করবে বলে অনুমান করা হয়েছিল এবং ধীরে ধীরে 2018 সালের নিম্ন অবস্থানে পতন হবে বলে মনে করা হচ্ছিল। গত সপ্তাহটি এরকম প্রত্যাশার যৌক্তিকতা নিশ্চিত করেছিল। মঙ্গলবার, 29শে ফেব্রুয়ারীতে, মাপকাঠির ক্রিপ্টোমুদ্রাগুলি এক স্থানীয় নূন্যতম 3,425$-এ স্থির ছিল, যার পরে তাদের আবার সজোরে ঘুরে যাওয়া শুরু হয়েছিল, এবং এই ক্রিপ্টোজুড়িকে ফেব্রুয়ারীতে 3,500$-এর অঞ্চলে দেখা গিয়েছিল। ক্রিপ্টোবাজারের মূলধনের পরিমাণের বিষয়ে সামগ্রিকভাবে বলতে গেলে, এটি সপ্তাহের শেষে 5.5%  “শুকিয়ে গিয়েছিল” এবং 113.6 বিলিয়ন ডলারে নেমে এসেছিল।

 

-আসন্ন সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, অনেক বিশ্লেষকদের মতামতের সাথে সাথে প্রাযুক্তিক ও রৈখিক বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে কৃত পূর্বাভাসগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে আমরা নিম্মলিখিত বক্তব্য রাখছিঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। চীনের সাথে বাণিজ্য চুক্তির আশা দেখা যাচ্ছে, যা ডলারের পক্ষে যাচ্ছে। 31শে জানুয়ারীতে, এই বিষয়ের উপরে ওয়াশিংটনে আরেক প্রস্থ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবং বিশ্লেষকরা যেমন বলেছেন, আলাপআলোচনা প্রক্রিয়ার অগ্রগতির জন্য দুপক্ষই প্রচুর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আমেরিকান আলোচনাকারীরা সফল হবার এক সুস্পষ্ট আশা ব্যক্ত করেছেন, কারণ রাষ্ট্রপতি ট্রাম্পের বর্তমান কিছু ইতিবাচক ফলাফলের নিদারুণ প্রয়োজন রয়েছে। তবে, আমেরিকানদের দ্বারা করা হুয়াই টেকনোলজিস কো.-এর বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগের কারণে উভয়পক্ষ দ্বারা ব্যক্ত করা এক আশাব্যঞ্জক ছবি কিছুটা ম্লান হয়ে গিয়েছে। পরবর্তী বৈঠক মধ্য-ফেব্রুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হবে বলে ঠিক হয়েছে।    সফল আলোচনার প্রতিভারসাম্য, যেমন ইতিমধ্যেই উপরে আলোচিত হয়েছে, তা ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ দ্বারা করা হয়েছিল, যারা সুদের হারের আরেকবারের বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন। এবং যদিও মাঝারি-মেয়াদে, 60% বিশ্লেষকগণ ডলারের শক্তিশালী হওয়ার জন্য এখনও অপেক্ষা করছেন, এই সপ্তাহে সংখ্যাগরিষ্ঠ বিশ্লেষকরা (70%) ইউরোর পক্ষ নিয়েছেন। তাদের মতে, যা প্রায় 80% দোদুল্যমান দোলক এবং D1-তে প্রবণতা নির্দেশক দ্বারা সমর্থিত হয়েছে, EUR/USD মুদ্রাজুড়ি আবারও একবার মাঝারি-মেয়াদের পার্শ্ববর্তী চ্যানেল 1.1300-1.1500-এর উচ্চতর পরিসীমা ভেঙ্গে ফেলবে এবং 1.1500-1.1570-এর অঞ্চলে পা রাখবে। পরবর্তী লক্ষ্য হবে 1.1625-এর উচ্চতা।
    এক বিকল্প পূর্বাভাসকে 30% বিশেষজ্ঞ, H4-তে রৈখিক বিশ্লেষণ এবং প্রায় 20% দোদুল্যমান সূচক সমর্থন করছে এই ইঙ্গিত দিয়ে যে এই মুদ্রাজুড়ির অধিক ক্রয় হয়েছে। এই ক্ষেত্রে, এই মুদ্রাজুড়ি, 1.1500-এর মূল স্তরকে ভাঙ্গতে ব্যর্থ হবার পরে, কিছু সময়ের জন্য 1.1400-1.1500-এর পার্শ্ববর্তী সংকীর্ণপ্রান্তে অবস্থান করবে। এবং যদি ডলারের কোন সদর্থক খবর আসে, এটি 1.1300-এর সহায়ক স্তরের দিগন্তে পৌঁছানোর প্রচেষ্টা করবে;
  • GBP/USD  মুদ্রাজুড়ি। বৃহস্পতিবার, 7ই ফেব্রুয়ারীতে সুদের হারের উপর ব্যাংক অফ্ ইংল্যাণ্ড তার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবে, অর্থাৎ সেই 0.75% হারের আশু কোন পরিবর্তনের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। বিনিয়োগকারীরা ব্রেক্সিটের পরিস্থিতির বিষয়ে আরো বেশী চিন্তাগ্রস্ত রয়েছেন, কিন্তু সুস্পষ্ট কোন কিছু বোঝা যাচ্ছে না। এছাড়াও, কোন চুক্তি ব্যতিরেকেই ইইউ থেকে ব্রিটিশ প্রস্থানের সম্ভাবনা আবারও একবার বৃদ্ধি পেয়েছে। এই কারণে 65% বিশ্লেষকরা প্রথমে 1.2930-এর স্তরে, এবং তারপরে আরো 100 পয়েন্ট নেমে গিয়ে এই মুদ্রাজুড়ির পতনের পূর্বাভাস করছেন।
    নির্দেশকদের কথা বলতে গেলে, তাদের প্রায় 40% H4-তে লাল রং দেখাচ্ছে, 40% সবুজ এবং 20% নিরপেক্ষ ধূসর রং দেখাচ্ছে। যদিও, D1-তে সবুজ রংয়ের প্রাধান্য রয়েছেঃ 60% বনাম 30% লাল এবং 10% ধূসর। নিকটতম প্রতিরোধক স্তর হল 1.3215, তারপরে 1.3250 এবং 1.3300; 
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। অদূর ভবিষ্যতে এই মুদ্রাজুড়ি থেকে কিছু আশ্চর্যজনক খবর আশা করা যেতে পারে, এবং কারণটি হল প্রাচ্যের নতুন বছর। প্রথাগতভাবে এই সময়টি যে কেবলমাত্র আর্থিক ফলাফলের সারসংক্ষেপ করার জন্য তা নয়, কিন্তু ব্যাংক অফ্ জাপানের সক্রিয় কার্যের জন্যও হয়েছে, যা এই সময় পরপর অনেক বছর ধরে অধিক পরিমাণে কেনা এবং বেচা শুরু করেছে। এই ধরণের হস্তক্ষেপের কারণে অনেক শত পয়েন্ট লাফাতে পারে, এবং এই মুহূর্তে বেশীরভাগ বিশ্লেষকগণ (70%), D1-তে রৈখিক বিশ্লেষণের সমর্থনে আশা করছেন যে এই মুদ্রাজুড়ির প্রথমে 108.00-108.55-তে পতন হবে, এবং তারপরে 110.00-এর দিগন্তে ফিরে আসবে। ঠিক একই সময়ে, প্রায় 60% বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন যে এই মুদ্রাজুড়ি যেই পয়েন্টে পৌঁছিয়েছে তাতেই থেমে থাকবে না এবং এক মাসের মধ্যে 111.70-এর প্রতিরোধক স্তরে পৌঁছাবে;  

  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। বিশেষজ্ঞ এবং বিনিয়োগকারীরা এখন দুটি দলে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। প্রথম দলটি বিশ্বাস করে যে বর্তমান স্তব্ধতা ঝড় আসার পূর্বেকার পরিস্থিতি। দ্বিতীয় দল মনে করে যে এটি একটি প্রারম্ভিক শান্তভাব...এমন কি আরো বেশী শান্ত। অ্যাণ্ডি ব্রোমবার্গ, CoinList ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের প্রধান পরের দলটির সাথে সহমত হয়েছেন, ইয়াহুঁ ফিনান্স-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই বক্তব্য প্রকাশ করে বলেছেন যে বাজারের পরিস্থিতি শান্ত থাকবে কারণ সমস্ত প্রয়োজনীয় উপকরণ ইতিমধ্যেই সৃষ্ট হয়েছে এবং সংস্থাগুলি ফাটকা গুজবের উপর কেন্দ্রীভূত না হয়ে উদ্ভাবনামূলক এবং পণ্য বিকাশের প্রতি মনোযোগ  দেবে।
    এই পরিস্থিতিটি সার্কেল রিসার্চ-এর প্রতিবেদনেও সমর্থিত হয়েছে, যাদের মতে, সারা বছরে ডিজিটাল মুদ্রায় প্রত্যক্ষ বিনিয়োগের পরিমাণ 8.5 গুণ কম হওয়া সত্ত্বেও, পক্ষান্তরে, ব্লকচেইন সংস্থায় বিনিয়োগ 3 গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং 5 বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে।
    আসন্ন কয়েক সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, 70% বিশেষজ্ঞরা এখনো বিশ্বাস করেন যে  Bitcoin-এর 2018 সালের নিম্ন অবস্থান 3,200-3,250$-এর অঞ্চলে নেমে আসা উচিত হবে, আর তারপরে 2,400$-এর সহায়ক স্তরে দৌড়াবে। বাকি 30% বিশেষজ্ঞরা BTC/USD ক্রিপ্টোজুড়ির 3,700-3,850$-এর অঞ্চলে স্বল্প-মেয়াদী বৃদ্ধির সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না, এবং সম্ভবত পরে আরো উঁচুতে 4.215-এর উচ্চতায় বৃদ্ধির পূর্বাভাসও।

 

-রোমান বাটকো, NordFX

 

-বিজ্ঞপ্তিঃ এই লেখনীগুলিকে আর্থিক বাজারে লেনদেন করার জন্য বিনিয়োগ বা নির্দেশিকার সুপারিশ হিসাবে গণ্য করা উচিত হবে নাঃ এগুলি শুধুমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং ঝুঁকিপূ্র্ণ এবং এতে গচ্ছিত অর্থের সম্পূর্ণ ক্ষতি হতে পারে।  


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)